kalerkantho

শনিবার । ১ অক্টোবর ২০২২ । ১৬ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

কোতোয়াল

[সপ্তম শ্রেণির বাংলা আনন্দপাঠ বইয়ের ‘তোতাকাহিনী’ গল্পে কোতোয়ালের উল্লেখ আছে]

১৭ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কোতোয়াল

রাজধানী ঢাকার মিন্টো রোডে নগর কোতোয়ালের ভাস্কর্য, ভাস্কর : মৃণাল হক

যাঁর অধীন ‘কোত’ মানে কেল্লা রক্ষার দায়িত্ব, তাঁকে কোতোয়াল বলে। কোতোয়াল শব্দটি মোগল আমলে সৃষ্টি। পরবর্তী সময়ে এটি বা এমন পদবি তাঁদের দেওয়া হতো, যাঁরা কোনো একটি নির্দিষ্ট শহর বা এলাকার আইনি সুরক্ষা ও নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকতেন। আধুনিক সময়ে একে একটি নির্দিষ্ট এলাকার পুলিশপ্রধানকে বোঝায়।

বিজ্ঞাপন

বাংলা একাডেমির আধুনিক বাংলা অভিধানে ‘কোতোয়াল’ শব্দের অর্থে বলা হয়েছে, ‘নগর রক্ষার দায়িত্বে নিয়োজিত আধিকারিক, কোটাল বা কমিশনার। ’ সংসদ বাংলা অভিধানে এই শব্দের অর্থ বলা হয়েছে, ‘কোটাল, নগররক্ষক, থানাদার। ’

ব্রিটিশ আমলে এই উপমহাদেশে জমিদারি, হাটবাজারের ইজারা, কৃষি, বন্দর বা ঘাট ইজারা থেকে ডেপুটি কালেক্টর (ডিসি) খাজনা, রাজস্ব কিংবা ট্যাক্স উত্তোলন করতেন। এ সময় তাঁর অধীনে রাজস্ব সংগ্রহের জন্য নিয়মিত পুলিশ বাহিনী ছাড়াও দাঙ্গা পুলিশের মতো কোতোয়াল বাহিনীও অনেক থানায় দায়িত্ব পালন করত। কোতোয়াল ছিলেন সেই বাহিনী বা সেই থানার প্রধান। তাঁর অধীনে ছিল দারোগা, জমাদার, হাবিলদার, নায়েক, কনস্টেবল ইত্যাদি।

আবুল ফজলের ‘আইন-ই-আকবরী’তে নগর কোতোয়ালের ক্ষমতা ও দায়িত্বের বিস্তারিত বর্ণনা দেওয়া হয়েছে। ‘আইন-ই-আকবরী’ ও ভারতীয় বা বিদেশি অন্যান্য সমসাময়িক বিবরণ অনুযায়ী নগর কোতোয়ালের দায়িত্বের পরিধি ছিল ব্যাপক। তাঁর দায়িত্বের অন্তর্ভুক্ত ছিল প্রহরা ও পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে নগরবাসীর নিরাপত্তা বিধান, রাতে সান্ধ্য আইন আরোপ, নগরের বাড়িঘর ও সড়কের তথ্য সংরক্ষণ, সময়ে সময়ে বাড়ির বাসিন্দাদের সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ, নগরবাসীর আয়-ব্যয়ের তদারকি, রাষ্ট্রের সন্দেহভাজন উচ্চপদস্থ কর্মচারীদের কার্যকলাপের ওপর নজর রাখা, ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করা, জনগণের নৈতিকতার ওপর নজরদারি, বাজার ও দ্রব্যমূল্য পর্যবেক্ষণ, পশু জবাই ও শবদাহের শ্মশান নিয়ন্ত্রণ ইত্যাদি।

যারা রাজস্ব তথা খাজনা দিতে পারত না, তাদের কোতোয়াল বাহিনী ধরে এনে থানায় রাখত। পরবর্তী সময়ে এ থানাগুলোই ‘কোতোয়ালি থানা’ হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। বাংলাদেশে বেশ কয়েকটি কোতোয়ালি থানা রয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা, রংপুর, কুমিল্লা, খুলনা, চট্টগ্রাম, বরিশাল, সিলেট কোতোয়ালি থানা অন্যতম।

১৭৬০ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত ঢাকা নগরীর কোতোয়াল সগৌরবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

ইন্দ্রজিৎ মণ্ডল

[আরো বিস্তারিত জানতে বাংলাপিডিয়া ও পত্রপত্রিকায় কোতোয়াল সম্পর্কিত লেখাগুলো পড়তে পারো]



সাতদিনের সেরা