kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৮ জুন ২০২২ । ১৪ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৭ জিলকদ ১৪৪৩

জানা-অজানা

খড়ম

[ষষ্ঠ শ্রেণির বাংলা চারুপাঠ বইয়ের ‘কতকাল ধরে’ প্রবন্ধে খড়মের উল্লেখ আছে]

২২ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



খড়ম

খড়ম এক প্রকার কাঠের পাদুকা। হিন্দি ‘খড়ৌঙ’ শব্দ থেকে বাংলায় ‘খড়ম’ শব্দটির উৎপত্তি। সংস্কৃতে খড়ম ‘পাদুকা’ নামে পরিচিত। পায়ের মাপে কাঠ কেটে সামনের দিকে কাঠের গুটি বসিয়ে খড়ম তৈরি করা হয়।

বিজ্ঞাপন

কাঠ দিয়ে তৈরি খড়ম পরিবেশবান্ধব।

খড়ম ভারতীয় উপমহাদেশের ঐতিহ্যের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে রয়েছে। বাংলাদেশেও একসময় এর প্রচলন ছিল। জমিদার ও সম্ভ্রান্ত পরিবারের লোকজন খড়ম ব্যবহার করত। তখন পাদুকা বলতেই ছিল কাঠের তৈরি খড়ম। রাতে শোবার আগে পুকুর থেকে পা ধুয়ে আসত, অজু করে ঘাট থেকে মসজিদে যেতে তারা খড়ম ব্যবহার করত। হিন্দুদের মহাকাব্য রামায়ণে খড়ম ব্যবহারের কথা উল্লেখ আছে। রামচন্দ্র তাঁর স্ত্রী সীতা ও ছোট ভাই লক্ষ্মণকে নিয়ে বনবাসে গেলে তাঁর আরেক ভাই ভরত রামের খড়ম সিংহাসনে বসিয়ে রাজ্য পরিচালনা করেছিলেন। হিন্দুরা খড়মকে দেবতা ও শ্রদ্ধেয় সাধু-সন্ন্যাসীদের পদচিহ্নের প্রতীকও মনে করে। হিন্দুদের পাশাপাশি জৈন ধর্মের ভিক্ষাজীবী সাধু-সন্ন্যাসীরা খড়ম ব্যবহার করতেন। ভারত উপমহাদেশের বিশিষ্ট আউলিয়া হজরত শাহজালাল (রহ.) চৌদ্দ শতকে সুদূর তুরস্ক থেকে সিলেটে এসেছিলেন খড়ম পায়ে দিয়ে। পরে সিলেটেই বসতি স্থাপন করেন। তাঁর ব্যবহৃত খড়ম এখনো তাঁর সমাধিস্থল সংলগ্ন স্থাপনায় রক্ষিত আছে।

খড়ম পায়ে হাঁটার সময় চটাস চটাস শব্দ হয়। কিছুকাল আগেও খড়মের শব্দে গৃহস্থরা বুঝতে পারতেন তাঁদের বাড়িতে কেউ আসছে। লোকজ সাহিত্যেও খড়ম শব্দটি স্থান পেয়েছে। যেমন—হরম বিবি খড়ম পায়/খটটাইয়া হাঁইটা যায়/হাঁটতে গিয়া হরম বিবি/ধুম্মুড় কইরা আছাড় খায়/আছাড় খাইয়া হরম বিবি/ফিরা ফিরা পিছন চায়...।

পৃথিবীর প্রাচীনতম খড়ম পাওয়া গিয়েছিল ভারতের বাইরে। যুক্তরাষ্ট্রের অরেগনে প্রাচীনতম এই খড়ম পাওয়া যায়, যা খ্রিস্টপূর্ব সাত হাজার থেকে আট হাজার বছর আগের বলে ধারণা করা হয়।

বর্তমানে চামড়া বা ফোম জুতা তৈরির কাজে ব্যবহৃত হলেও অতীতে এই দুই উপকরণ মোটেই সহজলভ্য ছিল না, বরং কাঠের প্রাচুর্য ছিল পুরো বিশ্বেই। স্বাভাবিকভাবে কাঠই বেছে নেওয়া হয় জুতা তৈরির প্রাচীনতম উপকরণ হিসেবে। কিন্তু বর্তমানে চামড়া, প্লাস্টিক ও ফোমের সহজলভ্যতার ফলে কাঠের খড়ম এখন আর কেউ ব্যবহার করে না বললেই চলে।

ইন্দ্রজিৎ মণ্ডল

[আরো বিস্তারিত জানতে পত্রপত্রিকায় খড়ম সম্পর্কিত লেখাগুলো পড়তে পারো]



সাতদিনের সেরা