kalerkantho

সোমবার । ৩ মাঘ ১৪২৮। ১৭ জানুয়ারি ২০২২। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

গ্লুকোজ

[ষষ্ঠ শ্রেণির বিজ্ঞান বইয়ের চতুর্দশ অধ্যায়ে গ্লুকোজের উল্লেখ আছে]

৪ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গ্লুকোজ

গ্লুকোজ (Glucose) একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কার্বোহাইড্রেট, যা শর্করার রাসায়নিক শ্রেণি বিভাগ মনোস্যাকারাইডের অন্তর্ভুক্ত। গ্লুকোজের অণুতে একটি-CHO মূলক এবং ৫টি OH থাকায় এটি অ্যালডিহাইড ও অ্যালকোহল উভয়ের মতো আচরণ করে। গ্লুকোজ মানুষসহ সব প্রাণী ও উদ্ভিদ শক্তি এবং বিপাকীয় প্রক্রিয়ার একটি উৎস হিসেবে ব্যবহার করে। এটি একটি মিষ্টি স্বাদযুক্ত দানাদার বা স্ফটিকাকার পদার্থ। গ্লুকোজ পানিতে সহজেই দ্রবণীয়, অ্যালকোহলে সামান্য দ্রবণীয়; কিন্তু ইথারে অদ্রবণীয়। এর আণবিক সংকেত C6H12O6

গ্লুকোজ গ্রিক শব্দ glukus থেকে উদ্ভূত হয়েছে, যার অর্থ ‘মিষ্টি’। গবেষণাগারে অ্যালকোহলের উপস্থিতিতে চিনিকে হাইড্রোজেন ক্লোরাইড (HCl) বা সালফিউরিক এসিড (H2SO4) দ্বারা আর্দ্র বিশ্লেষিত করে গ্লুুকোজ তৈরি করা হয়। কারখানায় প্রস্তুত গ্লুকোজ তৈরি করা হয় শ্বেতসার (চাল, আলু, ভুট্টা প্রভৃতি শ্বেতসারজাতীয় দ্রব্য) ও উচ্চ খাদ্যপ্রাণসম্পন্ন ফল থেকে।

গ্লুকোজের অণুতে ছয়টি কার্বন পরমাণু থাকে, যার একটি অ্যালডিহাইড গ্রুপের অংশ। তাই শ্রেণিগতভাবে গ্লুকোজ একটি অ্যালডোহেক্সোস। দ্রবণে এর অণু খোলা শিকল আকারে বা গোলাকার বলয়াকারে থাকতে পারে। বিভিন্ন প্রকার মিষ্টি ফল ও মধুতে প্রচুর গ্লুকোজ আছে। পাকা আঙুরে গ্লুকোজের পরিমাণ ১২-৩০ শতাংশ। এ জন্য গ্লুকোজকে আঙুরের শর্করা বা গ্রেইপ সুগারও বলে।

নিয়মিত গ্লুকোজ খাওয়া আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। গ্লুকোজ রোগীর খাবার, ফলমূল সংরক্ষণ ও ভিটামিন ‘সি’ তৈরিতে ব্যবহৃত হয়। সালোকসংশ্লেষণ বা ফটোসিনথেসিস প্রক্রিয়ার অন্যতম প্রধান উপাদান হচ্ছে গ্লুকোজ। এটি প্রাণী ও উদ্ভিদ কোষের শ্বাসক্রিয়ায় অন্যতম অপরিহার্য উপাদান হিসেবে ব্যবহৃত হয়। সহজ শর্করা হিসেবে এটি তাৎক্ষণিকভাবে রক্তে গ্লুকোজের চাহিদা পূরণ করে। এ ছাড়া উদ্ভিদের সাপোর্টিং টিস্যুর গাঠনিক উপাদান হিসেবে কাজ করে।

গ্লুকোজ ওজন বাড়ানোর ক্ষেত্রে কোনো ভূমিকা পালন করে না। অতিরিক্ত গ্লুকোজ শরীরে মূলত লিভারে গ্লাইকোজেন হিসেবে জমা হয়ে থাকে। কিন্তু এটি ওজন বাড়ায় না।

  ►     ইন্দ্রজিৎ মণ্ডল

 

[আরো বিস্তারিত জানতে বাংলাপিডিয়া ও পত্রপত্রিকায় গ্লুকোজ সম্পর্কিত লেখাগুলো পড়তে পারো।]



সাতদিনের সেরা