kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩ কার্তিক ১৪২৮। ১৯ অক্টোবর ২০২১। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

মাশরুম

[নবম-দশম শ্রেণির বিজ্ঞান বইয়ের সপ্তম অধ্যায়ে মাশরুমের উল্লেখ আছে]

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মাশরুম

মাশরুম (Mushroom) এক ধরনের উপকারী ছত্রাকজাতীয় উদ্ভিদ। উদ্ভিদ হলেও অন্যান্য উদ্ভিদের মতো মাশরুমের সালোকসংশ্লেষণ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে খাদ্য তৈরির জন্য সূর্য থেকে আলোর প্রয়োজন পড়ে না। আমাদের দেশে মাশরুম ব্যাঙের ছাতা নামে বেশি পরিচিত। একে আমরা সবজি হিসেবে খেয়ে থাকি।

প্রাচীন গ্রিক, রোম ও ভারতীয় সাহিত্যে রাজাদের একটি লোভনীয় খাদ্য হিসেবে মাশরুমের কথা বর্ণিত হয়েছে। বিশ্বের উন্নত দেশগুলোতে প্রতিদিনের স্বাভাবিক খাবার হিসেবে মাশরুম ব্যবহার করা হয়। বিশ শতকের শুরুতে ইউরোপে প্রথম মাশরুমের বাণিজ্যিক চাষ শুরু হলেও বাংলাদেশে এর চাষ শুরু হয়েছে আশির দশকের শেষ দিকে। সে সময় বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের উদ্যোগে মাশরুমের চাষ শুরু হয়।

পৃথিবীতে প্রায় ১৪ হাজার প্রজাতির মাশরুমের সন্ধান পাওয়া গেছে। তবে বাংলাদেশে শনাক্তকৃত প্রায় ২০ প্রজাতির মাশরুমের মধ্যে পাঁচ-ছয় প্রজাতির মাশরুমকে বিষাক্ত হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে। ইউরোপে মাশরুমের চাষ শুরু হলেও চীন বর্তমানে বিশ্বের সর্ববৃহৎ খাবার উপযোগী মাশরুম উৎপাদনকারী দেশ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। বিশ্বের মোট মাশরুম উৎপাদনের প্রায় অর্ধেক হয় চীনে। বাংলাদেশে ঝিনুক মাশরুমের চাষই বেশি প্রচলিত।

মাশরুম আমাদের দেহের জন্য খুব উপকারী। মানবদেহের অত্যাবশ্যকীয় ৯টি অ্যামাইনো এসিডের সবই এতে আছে। প্রোটিন, ভিটামিন ও মিনারেলের পরিমাণ এতে খুব বেশি। প্রাণিজ আমিষ যেমন—মাংস ও ডিমের আমিষ উন্নত ও সম্পূর্ণ হলেও তার সঙ্গে সম্পৃক্ত চর্বি থাকায় দেহে কোলেস্টেরল সমস্যা দেখা দেয়। যার ফলে উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ, মেদভুঁড়ি ইত্যাদি জটিল রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। পক্ষান্তরে মাশরুমের প্রোটিন নির্দোষ। চর্বি ও কার্বোহাইড্রেটের কম উপস্থিতি এবং কোলেস্টেরল ভাঙার উপাদান লোভাস্টাটিন, অ্যান্টাডেনিন, ইরিটাডেনিন ও নায়াসিন থাকায় শরীরে কোলেস্টেরল জমার ভয় থাকে না। এ ছাড়া মাশরুম হাড় ও দাঁত শক্ত করে এবং চুল পাকা ও চুল পড়া রোধে সাহায্য করে।

ইন্দ্রজিৎ মণ্ডল



সাতদিনের সেরা