kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

জ্ঞা ন মূ ল ক প্র শ্ন

অষ্টম শ্রেণি : বিজ্ঞান

মো. মিকাইল ইসলাম নিয়ন, সহকারী শিক্ষক, ঝিনুক মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, চুয়াডাঙ্গা সদর চুয়াডাঙ্গা

১৩ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



প্রথম অধ্যায়

প্রাণিজগতের শ্রেণিবিন্যাস

[পূর্ব প্রকাশের পর]

১৫। পেস্ট কাকে বলে?

     উত্তর : প্রাণিজগতে আর্থ্রপোডা পর্বের প্রাণীদের মধ্যে ক্ষতিকর পোকাদের পেস্ট বলে।

১৬। আরশোলার দেহের রক্তপূর্ণ গহ্বর কী নামে পরিচিত?

     উত্তর : আরশোলার দেহের রক্তপূর্ণ গহ্বর হিমোসিল নামে পরিচিত।

 

দ্বিতীয় অধ্যায়

জীবের বৃদ্ধি ও বংশগতি

১।   জীবদেহে কয় ধরনের কোষ বিভাজন দেখা যায়?

     উত্তর : জীবদেহে তিন ধরনের কোষ বিভাজন দেখা যায়।

২।   কোন ধরনের কোষ বিভাজনে জননকোষ উত্পন্ন হয়?

     উত্তর : মিয়োসিস কোষ বিভাজনে জননকোষ উত্পন্ন হয়।

৩।   মানুষের প্রতিটি দেহকোষে কয়টি ক্রোমোজোম রয়েছে?

     উত্তর : মানুষের প্রতিটি দেহকোষে মোট ২৩ জোড়া অর্থাৎ ৪৬টি ক্রোমোজোম রয়েছে।

৪।   বংশগতি কাকে বলে?

     উত্তর : যে প্রক্রিয়ায় মাতা-পিতার বৈশিষ্ট্য সন্তান-সন্ততিতে সঞ্চালিত হয়, তাকে বংশগতি বলে।

৫।   ক্যারিওকাইনেসিস কী?

     উত্তর : মাইটোসিস কোষ বিভাজনের প্রথম পর্যায়ে নিউক্লিয়াসের বিভাজন। ঘটে নিউক্লিয়াসের এ বিভাজনকে ক্যারিওকাইনেসিস বলে।

৬।   ক্রোমোজোম কাকে বলে?

     উত্তর : নিউক্লিয়াসে অবস্থিত নির্দিষ্টসংখ্যক সুতার মতো যে অংশগুলো বংশগত বৈশিষ্ট্য বহন করে তাদের ক্রোমোজোম বলে।

৭।   মিয়োসিস কী?

     উত্তর : যে প্রক্রিয়ায় মাতৃকোষের নিউক্লিয়াস পরপর দুইবার বিভাজিত হয় এবং ক্রোমোজোমের বিভাজন একবার ঘটে। ফলে সৃষ্ট অপত্য কোষে ক্রোমোজোমের সংখ্যা অর্ধেক হ্রাস পায়। তাকে মিয়োসিস বলে।

৮।   অ্যামাইটোসিস কোষ বিভাজন কাকে বলে?

     উত্তর : যে কোষ বিভাজনে মাতৃকোষের নিউক্লিয়াস ও সাইটোপ্লাজম সরাসরি বিভক্ত হয়ে দুটি অপত্য কোষ সৃষ্টি করে তাকে অ্যামাইটোসিস কোষ বিভাজন বলে।

৯।   জিন কাকে বলে?

     উত্তর : জীবের বৈশিষ্ট্য নিয়ন্ত্রণকারী উঘঅ-এর অংশকে জিন নামে অভিহিত করা হয়।

১০। বংশগতির জনক কে?

     উত্তর : বংশগতির জনক গ্রেগর জোহান মেন্ডেল।

১১। হ্যাপ্লয়েড অবস্থা কী?

     উত্তর : মিয়োসিস কোষ বিভাজনে জননকোষে ক্রোমোজোম সংখ্যা মাতৃকোষের ক্রোমোজোম সংখ্যার অর্ধেক হয়ে যায়। কোষের ক্রোমোজোম সংখ্যার এরূপ অবস্থাকে হ্যাপ্লয়েড অবস্থা বলে।

১২। ইন্টারফেজ কী?

     উত্তর : মাইটোসিস কোষ বিভাজনকালে ক্যারিওকাইনেসিস ও সাইটোকাইনেসিস এই দুটি অবস্থা শুরু হওয়ার আগে কোষকে কিছু প্রস্তুতিমূলক কাজ করতে হয়। কোষটির এ অবস্থাকে ইন্টারফেজ বলে।

১৩। জীবদেহ কী দিয়ে গঠিত?

     উত্তর : জীবদেহ কোষ দ্বারা গঠিত।

১৪। মাইটোসিস কোষ বিভাজন কয়টি ধাপে সম্পন্ন হয়?

     উত্তর : মাইটোসিস কোষ বিভাজন পাঁচটি ধাপে সম্পন্ন হয়।

১৫। ডিএনএর পূর্ণরূপ কী?

     উত্তর : ডিএনএর পূর্ণরূপ ডিঅক্সিরাইবোনিউক্লিয়িক এসিড।

১৬। ক্রোমাটিড কী?

     উত্তর : মাইটোসিস কোষ বিভাজনের প্রোফেজ ধাপে প্রতিটি ক্রোমোজোম লম্বালম্বিভাবে বিভক্ত হওয়ার পর যে দুটি সমান আকৃতির সুতার মতো অংশ গঠন করে তাদের প্রতিটিকে ক্রোমাটিড বলে।

১৭। কোষ বিভাজন কাকে বলে?

     উত্তর : যে প্রক্রিয়ায় একটি কোষ থেকে একাধিক কোষ সৃষ্টি হয় তাকে কোষ বিভাজন বলে।

১৮।  মাইটোসিস কোষ বিভাজনের সবচেয়ে দীর্ঘস্থায়ী ধাপ কোনটি?

     উত্তর : মাইটোসিস কোষ বিভাজনের সবচেয়ে দীর্ঘস্থায়ী ধাপ হলো প্রোফেজ।

১৯। জাইগোট কী?

     উত্তর : জাইগোট হলো কোষের ডিপ্লয়েড অবস্থা, যেখানে পুং জনন কোষ ও স্ত্রী জনন কোষের মিলন ঘটে।

২০। মিয়োসিস কোষ বিভাজনে অপত্য কোষের সংখ্যা কত?

     উত্তর : মিয়োসিস কোষ বিভাজনে মাতৃকোষ বিভাজিত হয়ে চারটি অপত্য কোষের সৃষ্টি করে।

২১। সমীকরণিক বিভাজন বলা হয় কোনটিকে?

     উত্তর : মাইটোসিসকে সমীকরণিক বিভাজন বলে।

২২। কোন ধরনের জীবে অ্যামাইটোসিস কোষ বিভাজন হয়?

     উত্তর : ব্যাকটেরিয়া, ইস্ট, ছত্রাক, অ্যামিবা ইত্যাদি এককোষী জীবে অ্যামাইটোসিস কোষ বিভাজন হয়।