kalerkantho

শনিবার । ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৮ নভেম্বর ২০২০। ১২ রবিউস সানি ১৪৪২

ষষ্ঠ শ্রেণি ► বিজ্ঞান

আবু জাফর সৈকত সহকারী শিক্ষক হাজী সিরাজ উদ্দিন মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়, নারায়ণগঞ্জ

২৪ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জ্ঞা ন মূ ল ক  প্র শ্ন

নবম অধ্যায়

আলোর ঘটনা

১।        আলো কী?

            উত্তর : বাহ্যিক যে শক্তির প্রভাবে আমরা কোনো বস্তু দেখতে পাই তাকে আলো বলে।

২।        আলো প্রতি সেকেন্ড কত কিলোমিটার বেগে চলে?

            উত্তর : প্রায় ৩ লাখ কিলোমিটার।

৩।        উজ্জ্বল বস্তু কাকে বলে?

            উত্তর : যেসব বস্তুর নিজের আলো আছে তাদের উজ্জ্বল বস্তু বলে। যেমন-মোমবাতি, বৈদ্যুতিক বাতি, সূর্য ইত্যাদি।

 

৪।        অনুজ্জ্বল বস্তু কাকে বলে?

            উত্তর : যেসব বস্তুর নিজের কোনো আলো নেই অর্থাৎ অন্য বস্তুর আলো প্রতিফলিত করে তাদের অনুজ্জ্বল বস্তু বলে।

৫।        আলোর প্রতিফলন কাকে বলে?

            উত্তর : কোনো বস্তুতে আলো পড়ে বাধা পেয়ে ফিরে আসার ঘটনাই আলোর প্রতিফলন।

৬।       আলোর শোষণ কাকে বলে?

            উত্তর : কোনো বস্তুতে আলো পড়ে তা যদি ফিরে না আসে তাহলে তাকে আলোর শোষণ বলে।

৭।        কোন রঙের বস্তু সকল আলো শোষণ করে?

            উত্তর : কালো রঙের বস্তু সকল আলো শোষণ করে।

৮।        কোন বস্তুর ক্ষেত্রে পার্শ্ব পরিবর্তন বোঝা যায় না?

            উত্তর : প্রতিসম বস্তুর ক্ষেত্রে পার্শ্ব পরিবর্তন বোঝা যায় না।

৯।        আলোক রশ্মি কী?

            উত্তর : আলোর সরল রৈখিক পথই আলোক রশ্মি।

১০। পলিশ করা কঠিন তলে কোন ধরনের প্রতিফলন হয়?

            উত্তর : আলোর নিয়মিত প্রতিফলন ঘটে।

১১।      প্রতিফলক পৃষ্ঠ কী?

            উত্তর : যে পৃষ্ঠে বাধা পেয়ে আলোকরশ্মি প্রথম মাধ্যমে ফিরে আসে তাকে প্রতিফলক পৃষ্ঠ বলে।

১২। কী ধরনের পৃষ্ঠে আলোর প্রতিফলনের সাথে বিক্ষেপণও ঘটে?

            উত্তর : অমসৃণ বা কম চকচকে পৃষ্ঠে।

১৩। প্রতিফলন কোণ কাকে বলে?

            উত্তর : আলো অভিলম্বের সাথে যে কোণ দর্পণ থেকে প্রতিফলিত হয় তাকে প্রতিফলন কোণ বলে।

১৪।      আপতন কাকে বলে?

            উত্তর : কোনো বস্তুর পৃষ্ঠে আলো এসে পড়া বা পতনকে আপতন বলা হয়।

১৫।      আপতন কোণ কাকে বলে?

            উত্তর : আলো অভিলম্বের সাথে যে কোণ দর্পণে পড়ে তাকে আপতন কোণ বলে।

 

১৬।     রংধনু সৃষ্টির কারণ কী?

            উত্তর : রংধনু সৃষ্টির কারণ আলোর বিক্ষিপ্ত প্রতিফলন।

১৭। পেরিস্কোপ তৈরিতে কয়টি সমতল দর্পণ প্রয়োজন?

            উত্তর : পেরিস্কোপ তৈরিতে দুটি সমতল দর্পণ প্রয়োজন।

১৮।      দর্পণ কী?

            উত্তর : যে মসৃণ তলে আলোর নিয়মিত প্রতিফলন ঘটে তাই দর্পণ।

১৯। ব্যাপ্ত বা বিক্ষিপ্ত বা অনিয়মিত প্রতিফলন কাকে বলে?

            উত্তর : যখন আপতিত আলোকরশ্মিগুলো পরস্পর সমান্তরাল কিন্তু প্রতিফলিত রশ্মিগুলো পরস্পরের সমান্তরাল হয় না আলোর সে ধরনের প্রতিফলনকে ব্যাপ্ত বা বিক্ষিপ্ত বা অনিয়মিত প্রতিফলন বলে।

২০।     নিয়মিত প্রতিফলন কাকে বলে?

            উত্তর : যখন আপতিত আলোকরশ্মিগুলো পরস্পর সমান্তরাল এবং প্রতিফলিত আলোকরশ্মিগুলো পরস্পর সমান্তরাল হয় তখন তাকে নিয়মিত প্রতিফলন বলে।

২১।      প্রতিবিম্ব কাকে বলে?

            উত্তর : কোনো বস্তু থেকে আলো প্রতিফলিত হয়ে কোনো মসৃণ বা চকচকে পৃষ্ঠে পড়লে বস্তুটির একটি বিম্বের সৃষ্টি হয়। একে প্রতিবিম্ব বলে।

২২।     প্রিজম কাকে বলে?

            উত্তর : যে প্রতিসারক আলোকরশি আপতিত হয়ে প্রতিসৃত হওয়ার সময় সাতটি রঙে বিভক্ত হয়ে যায় সেই দর্পণকে প্রিজম বলে।    

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা