kalerkantho

সোমবার । ২৩ চৈত্র ১৪২৬। ৬ এপ্রিল ২০২০। ১১ শাবান ১৪৪১

হিসাববিজ্ঞান চর্চা

লেনদেন থেকে হিসাবের শ্রেণি নির্ণয়

মো. আব্দুল হান্নান, সহকারী শিক্ষক, সামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজ

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



ব্যবসায়ের আর্থিক ফলাফল ও আর্থিক অবস্থা জানার জন্য লেনদেনগুলোকে সম্পদ, দায়, আয়, ব্যয় ও মালিকানাস্বত্ব—এই পাঁচ শ্রেণিতে বিভক্ত করা হয়। নিম্নে বিভিন্ন লেনদেন ও লেনদেনসংশ্লিষ্ট হিসাবের শ্রেণির কিছু উদাহরণ দেওয়া হলো :

♦ নগদ ৫০,০০০ টাকা, ৩০,০০০ টাকার আসবাবপত্র এবং ২০,০০০ টাকা ঋণ নিয়ে ব্যবসায় আরম্ভ করলেন।

এখানে,

নগদান হিসাব (সম্পদ)

আসবাবপত্র হিসাব (সম্পদ)

ঋণ হিসাব (দায়)

মূলধন হিসাব (মালিকানাস্বত্ব)

♦ ব্যাংকে ২০,০০০ টাকা জমা দিয়ে হিসাব খোলা হলো।          

এখানে,

ব্যাংক হিসাব (সম্পদ)

নগদান হিসাব (সম্পদ)

♦ ব্যাংক থেকে উত্তোলন ৬,০০০ টাকা।          

এখানে,

নগদান হিসাব (সম্পদ)

ব্যাংক হিসাব (সম্পদ)

♦ যন্ত্রপাতি ক্রয় ১৫,০০০ টাকা।

এখানে,

যন্ত্রপাতি হিসাব (সম্পদ)

নগদান হিসাব (সম্পদ)

♦ চেকের মাধ্যমে পণ্য ক্রয় ১০,০০০ টাকা।    

এখানে,

ক্রয় হিসাব (ব্যয়)

ব্যাংক হিসাব (সম্পদ)

♦ বাকিতে পণ্য ক্রয় ৩০,০০০ টাকা।

এখানে,

ক্রয় হিসাব (ব্যয়)

পাওনাদার হিসাব (দায়)

♦ পণ্য বিক্রয় ৪০,০০০ টাকা   

এখানে,

নগদান হিসাব (সম্পদ)

বিক্রয় হিসাব (আয়)

♦ চেকের মাধ্যমে পণ্য বিক্রয় ৫,০০০ টাকা।

এখানে,

ব্যাংক হিসাব (সম্পদ)

বিক্রয় হিসাব (আয়)

♦ সেবা প্রদানের মাধ্যমে আয় ১০,০০০ টাকা।

এখানে,

নগদান হিসাব (সম্পদ)

সেবা আয় হিসাব (আয়)

♦ দেনাদারের কাছ থেকে আদায় ৫,০০০ টাকা।

এখানে,

নগদান হিসাব (সম্পদ)

দেনাদার হিসাব (সম্পদ)।

[বাকি অংশ আগামী সংখ্যায়]

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা