kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

তৈলচিত্র

[অষ্টম শ্রেণির বাংলা সাহিত্য কণিকা বইয়ের তৈলচিত্রের ভূত গল্পে ‘তৈলচিত্র’-এর কথা উল্লেখ আছে]

ইন্দ্রজিৎ মণ্ডল   

১৪ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



তৈলচিত্র

তৈলচিত্র : মোনালিসা

তৈলচিত্র হলো তেলরঙে আঁকা ছবি। এটি এমন একটি শিল্প মাধ্যম, যেখানে রঞ্জক পদার্থের সঙ্গে বাইন্ডার বা বন্ধনী হিসেবে শোষক তেল ব্যবহার করা হয়। একে ইংরেজিতে বলে Oil painting। তৈলচিত্রে সবচেয়ে জনপ্রিয় শোষক তেল হচ্ছে তিসির তেল। এ ছাড়া আখরোট, পোস্তবীজ, সূর্যমুখী, তারপিন ও কুসুম ফুলের তেল ব্যবহার করা হয়। 

প্রথম দিকে তৈলচিত্র কাঠের প্যানেলে আঁকা হতো। লোমবার্ডি পপলার কাঠের প্যানেলে তেলরঙে আঁকা লিওনার্দো দ্য ভিঞ্চির মোনালিসা পৃথিবীর সবচেয়ে পরিচিত একটি তৈলচিত্র। তবে পঞ্চদশ শতাব্দীর পরে ক্যানভাস কাপড় জনপ্রিয় হয়ে উঠলে তখন থেকে তৈলচিত্র ক্যানভাসে আঁকা হয়। সেই সময় নেদারল্যান্ডসের শিল্পী ইয়ান ভান আইক তেলরংকে সুদক্ষভাবে ব্যবহার করে তৈলচিত্র আঁকা শুরু করেন এবং এই মাধ্যমটিকে জনপ্রিয় করে তোলেন। তিনি তেলরঙে তৈলচিত্র এতটাই নিখুঁত করে ফুটিয়ে তোলেন যে তাঁর কাছ থেকেই পরবর্তী সময়ে শিল্পীরা তেলরং ব্যবহারে উৎসাহী হয়ে ওঠেন। ইয়ান ভান আইকের দাদা হিউবার্ট ভান আইকও তৈলচিত্র আঁকায় দক্ষ ছিলেন।

২০০৮ সালে আফগানিস্তানের বামিয়ান উপত্যকায় বেশ কিছু তৈলচিত্র আবিষ্কৃত হয়েছে, যেগুলো প্রায় ৬৫০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে আঁকা। এসব চিত্রে শোষক তেল হিসেবে ব্যবহার করা হয় আখরোট ও পোস্তবীজের তেল। আবিষ্কৃত তৈলচিত্রের মধ্যে এই চিত্রগুলোই সবচেয়ে প্রাচীন।

প্রথম দিকে গুঁড়া রঙের সঙ্গে তেল মিশিয়ে তৈলচিত্রের রং তৈরি করা হতো। ১৮৪১ সালে লন্ডনের শিল্পী জন গোফে র‌্যান্ড আবিষ্কার করলেন তেলরঙের টিউব। তাঁর এই আবিষ্কার ছবি আঁকার জগত্টাকেই পাল্টে দেয়। প্রতিটি রং ব্যবহারের আগে তেলের সঙ্গে সঠিক অনুপাতে মিশিয়ে তৈরি করে নিতে হতো; কিন্তু রঙের টিউব আবিষ্কারের সঙ্গে সঙ্গে এর প্রয়োজনীয়তা কমে যায়। পাশাপাশি রংকে আগে থেকে তৈরি করে টিনের টিউবে ভরে শিল্পীর হাতে পৌঁছে দেওয়া এবং ছিপি এঁটে ভবিষ্যতে ব্যবহারের জন্য সংরক্ষণ করা সম্ভব হয়।

তেলরঙে ছবি আঁকায় একটি বড় সমস্যা হচ্ছে এ রং অনেক দেরিতে শুকায়। তাই একেকটি তৈলচিত্র এঁকে শেষ করতে শিল্পীর অনেক সময়ের প্রয়োজন হয়।          

             

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা