kalerkantho

রবিবার । ২৬ মে ২০১৯। ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২০ রমজান ১৪৪০

সপ্তম শ্রেণি

বিজ্ঞান

মো. মিকাইল ইসলাম নিয়ন, সহকারী শিক্ষক, ঝিনুক মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, চুয়াডাঙ্গা সদর, চুয়াডাঙ্গা।

১৮ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সৃজনশীল প্রশ্ন প্রথম অধ্যায় : নিম্নশ্রেণির জীব

প্রশ্ন: ছকটি দেখে সংশ্লিষ্ট প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও।

ক) কোন  বিজ্ঞানী সর্বপ্রথম ব্যাকটেরিয়া দেখতে পান?

খ) ভাইরাস কোন অবস্থায় জীবের লক্ষণ হারিয়ে ফেলে?

গ) রাজ্য-২ ও রাজ্য-৩-এর পার্থক্য ছকে উপস্থাপন করো।

ঘ) উদ্দীপকের  রাজ্য-১ ও রাজ্য-৩-এর মধ্যে কোন রাজ্যের জীবগুলো মানবজীবনের জন্য অধিক গুরুত্বপূর্ণ—বিশ্লেষণ করো।

 

সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর

ক) বিজ্ঞানী আন্টনি ফন লিউয়েন হুক সর্বপ্রথম ব্যাকটেরিয়া দেখতে পান।

খ) ভাইরাসের দেহ প্রধানত আমিষ ও নিউক্লিক এসিড দ্বারা গঠিত। যখন এদের আমিষ আবরণ থেকে  নিউক্লিক এসিড বের হয়ে যায়, তখন এরা জীবের  লক্ষণ হারিয়ে ফেলে।

গ) উদ্দীপকে উল্লিখিত অণুজীবজগতের শ্রেণিবিন্যাস থেকে বোঝা যায়, রাজ্য-২ হলো প্রোক্যারিওটা ও রাজ্য-৩ হলো ইউক্যারিওটা। নিচে রাজ্য প্রোক্যারিওটা ও   ইউক্যারিওটার পার্থক্য ছকে উপস্থাপন করা হলো—

ঘ) উত্তর : উদ্দীপকের রাজ্য-১ : এক্যারিওটা ও রাজ্য-৩ : ইউক্যারিওটা।

নিচে এ দুটি রাজ্যের জীবগুলোর গুরুত্ব বিশ্লেষণ করা হলো—

রাজ্য-১ (এক্যারিওটা) : এক্যারিওটা রাজ্যের জীবকে অকোষীয় অণুজীব বলা হয়, যেমন—ভাইরাস। জীবপ্রযুক্তিতে বাহক হিসেবে ভাইরাস ব্যবহার করা হয়। তবে উপকারের তুলনায় ভাইরাসের ক্ষতিকর প্রভাব বেশি। যেমন—ভাইরাস মানবদেহে বসন্ত, হাম, সর্দি, ইনফ্লুয়েঞ্জা ইত্যাদি রোগ সৃষ্টি করে। এ ছাড়া ধানের টুংরো ও তামাকের মোজাইক রোগ ভাইরাসের কারণে হয়।

রাজ্য-৩ (ইউক্যারিওটা ) : যেসব অণুজীব কোষের কেন্দ্রিকা সুগঠিত, তাদেরকেই ইউক্যারিওটা বা প্রকৃতকোষী বলে। যেমন—শৈবাল, ছত্রাক ইত্যাদি। ছত্রাক মূল্যবান ওষুধ তৈরিতে, পাউরুটি ফোলানোতে, ভিটামিন ট্যাবলেট তৈরিতে, শৌখিন খাদ্য তৈরি ইত্যাদিতে ব্যবহৃত হয়। আবার শৈবাল মৎস্য চাষে, আইসক্রিম তৈরিতে এবং আয়োডিন ও পটাসিয়ামের উৎস হিসেবে ফাইটোপ্লাঙ্কটনরূপে ব্যবহৃত হয়।

ওপরের রাজ্য-১ ও রাজ্য-৩-এর গুরুত্ব বিশ্লেষণ করলে দেখা যায় যে দুটি রাজ্যের অণুজীবেরই কিছু উপকারী ভূমিকা রয়েছে। তবে তুলনামূলকভাবে রাজ্য-৩-এর অন্তর্গত অণুজীবগুলো মানবজীবনের জন্য অধিক গুরুত্বপূর্ণ।

মন্তব্য