kalerkantho

বৃহস্পতিবার  । ১৭ অক্টোবর ২০১৯। ১ কাতির্ক ১৪২৬। ১৭ সফর ১৪৪১       

জানা-অজানা

শিখা চিরন্তন

নবম-দশম শ্রেণির বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা বইয়ে ‘শিখা চিরন্তন’-এর কথা উল্লেখ আছে

১৪ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



শিখা চিরন্তন

শিখা চিরন্তন স্বাধীনতাসংগ্রামের জ-লন্ত স্মারক, বাঙালির শৌর্যবীর্য আর অহংকারের প্রতীক। এটি রাজধানী ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে (তৎকালীন ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দান) অবস্থিত। ১৯৭১ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এ স্থানে দাঁড়িয়ে ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ দেন। সেই ভাষণ ও পাকিস্তানি বাহিনীর আত্মসমর্পণের দলিল স্বাক্ষরের এই স্থানকে স্মরণীয় করে রাখতে ১৯৯৬ সালে শিখা চিরন্তন স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়। এ উপলক্ষে ১৯৯৭ সালের ৭ মার্চ তৎকালীন ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিখা চিরন্তন প্রজ-ালন এবং দেশব্যাপী শোভাযাত্রার উদ্বোধন করেন।

এই প্রজ-লিত শিখা সারা দেশ ঘুরে ২৬ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে পৌঁছায়। বিশ্বনন্দিত চার নেতা—শান্তিতে নোবেল বিজয়ী দক্ষিণ আফ্রিকার রাষ্ট্রপতি নেলসন ম্যান্ডেলা, ফিলিস্তিনের ইয়াসির আরাফাত, তুরস্কের সুলেমান ডেমিরেল ও বাংলাদেশের তৎকালীন ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এই শিখা স্থাপন করেন। জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন তৎকালীন রাষ্ট্রপতি সাহাবুদ্দীন আহমদ।

♦ ইন্দ্রজিৎ মণ্ডল

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা