kalerkantho

শুক্রবার  । ১৮ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৮ সফর ১৪৪১              

জানা-অজানা

ব্রহ্মপুত্র

[বিভিন্ন শ্রেণির বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় বইয়ে ব্রহ্মপুত্র নদের কথা উল্লেখ আছে]

১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



ব্রহ্মপুত্র

মানস সরোবর

এশিয়া মহাদেশের গুরুত্বপূর্ণ একটি নদ ব্রহ্মপুত্র। এর অববাহিকা অঞ্চল চীন (তিব্বত), ভারত ও বাংলাদেশের বিস্তীর্ণ এলাকা। আগে এর নাম ছিল লৌহিত্য। তিব্বতে জাঙপো ও আসামে দিহাঙ নামে পরিচিত। তিব্বতের মানস সরোবরে নদটির উৎপত্তি। পরে আসাম হয়ে প্রবেশ করেছে বাংলাদেশে। ব্রহ্মপুত্রের প্রধান ধারাটি একসময়ে ময়মনসিংহের মধ্য দিয়ে উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে দক্ষিণ-পূর্ব দিকে আড়াআড়িভাবে প্রবাহিত হতো। ১৭৮৭ সালে সংঘটিত ভূমিকম্পে ব্রহ্মপুত্রের তলদেশ উত্থিত হওয়ায় পানি ধারণক্ষমতার বাইরে চলে যায় এবং নতুন স্রোতধারার সৃষ্টি করে। এই নতুন স্রোতধারাটি যমুনা নদী নামে পরিচিত। ব্রহ্মপুত্রের দৈর্ঘ্য ২৮৫০ কিলোমিটার ও সর্বাধিক প্রস্থ ১০৪২৬ মিটার। অববাহিকার আয়তন ৬,৫১,৩৩৪ বর্গকিলোমিটার, যার ৪৪,০৩০ বর্গকিলোমিটার বাংলাদেশে অবস্থিত।      

♦ আব্দুর রাজ্জাক

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা