kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ কার্তিক ১৪২৮। ২৮ অক্টোবর ২০২১। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

এরই নাম হাসপাতাল

বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় মনোযোগী হতে হবে

২২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



গতকাল কালের কণ্ঠ’র প্রথম পাতায় প্রকাশিত একটি ছবি এবং তৃতীয় পাতায় প্রকাশিত একটি খবর সচেতন নাগরিকদের দৃষ্টি কাড়বে, এটিই স্বাভাবিক। ছবি ও খবর দুটিই চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের। প্রথম পাতায় প্রকাশিত ছবিতে দেখা যাচ্ছে চারদিকে আবর্জনার স্তূপ মাড়িয়ে ট্রলি ঠেলে রোগী নিয়ে যাচ্ছে স্বজনরা। ছবির ক্যাপশন তাই ভাগাড় নয়, হাসপাতাল। ‘হাসপাতালের অবস্থা এই’ শীর্ষক খবরে বলা হয়েছে, দেড় মাস ধরে হাসপাতালটির এই অবস্থা। এই বর্জ্য পরিষ্কারের দায়িত্ব কার, তা নিয়ে ঠেলাঠেলি চলছে পৌরসভা ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের মধ্যে। ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে রোগী ও তাদের স্বজনদের। হাসপাতালের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। এটি নিয়ে কারো কোনো ভাবনা থাকলে তো বিষয়টি এত দূর পর্যন্ত গড়াত না। প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগ, ফ্লু কর্নার, করোনা ওয়ার্ড, করোনার ইয়েলো জোন, রেড জোন, যেখানেই যে কেউ আসুক না কেন, তাকে এই আবর্জনা দেখতে হবে। আবর্জনার দুর্গন্ধ পেতে হবে। হাসপাতালের কর্মীদেরও দিনে ১৫ থেকে ২০ বার এই আবর্জনার ওপর দিয়ে যেতে-আসতে হয়। প্রকাশিত খবর থেকে জানা যাচ্ছে, আগে পৌরসভার গাড়ি এসে হাসপাতালের বর্জ্য নিয়ে যেত। কিন্তু দেড় মাস ধরে গাড়ি নিয়মিত আসছে না। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও পৌরসভার মধ্যে চলছে ঠাণ্ডা লড়াই। এ কারণে আবর্জনার স্তূপ হয়ে যাচ্ছে। দুই পক্ষের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলছে, পর্যাপ্ত পরিচ্ছন্নতাকর্মী না থাকায় তারা পেরে উঠছে না। আর পৌর কর্তৃপক্ষের ভাষ্য, হাসপাতালের বর্জ্য পৌরসভা ফেলবে না।

হাসপাতালের ঝুঁকিপূর্ণ চিকিৎসা বর্জ্যের পাশাপাশি সংক্রামক বর্জ্যের সঠিক ব্যবস্থাপনা না থাকলে তা যে পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি হয়ে উঠতে পারে, তা কারো অজানা নয়। দেশে চিকিৎসা বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও প্রক্রিয়াকরণ বিধিমালা আছে। জাতীয় পরিবেশনীতিতেও স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানে সব বর্জ্যের উপযুক্ত ব্যবস্থাপনা পদ্ধতি গ্রহণ বাধ্যতামূলক করতে বলা হয়েছে। বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিধিমালায় দুই শ্রেণির অসংক্রামক ও ৯ শ্রেণির সংক্রামক বর্জ্যের জন্য পৃথক ব্যবস্থাপনার নির্দেশনা রয়েছে। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে, নীতি ও বিধিমালার মাধ্যমে মেডিক্যাল বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কাঠামো তৈরি করা হলেও সব হাসপাতাল কি তা মানছে? মানলে তো আজ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের এই ছবি ও খবর দেখতে হতো না।

 



সাতদিনের সেরা