kalerkantho

মঙ্গলবার । ৩ কার্তিক ১৪২৮। ১৯ অক্টোবর ২০২১। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

দলগুলোর প্রস্তুতি শুরু হয়েছে

১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এখনো প্রায় দেড় বছর বাকি। এরই মধ্যে দেশের রাজনৈতিক দলগুলো নির্বাচনের হিসাব-নিকাশ করতে শুরু করেছে। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সভা ও বিএনপির সাম্প্রতিক সময়ের বৈঠকগুলো ইঙ্গিত দিচ্ছে নির্বাচনী আলোচনা শুরু হয়ে গেছে। শীর্ষস্থানীয় নেতাদের পাশাপাশি তৃণমূলের সাধারণ কর্মীদের চিন্তায় এখন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সে নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে কি না, এমন কোনো স্থির সিদ্ধান্ত এখন পর্যন্ত আসেনি। অবশ্য সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময়ও এখনো আসেনি। আগামী নির্বাচন সামনে রেখে করণীয় নির্ধারণে দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের মতামত জানার জন্য গত মঙ্গলবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত টানা তিন দিন সভা করেছে বিএনপি। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান লন্ডন থেকে ভার্চুয়ালি এতে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠক সূত্রে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, বিএনপি চেয়ারপারসনের মুক্তি ও সরকার পতনের এক দফার আন্দোলন করতে চায় বিএনপি। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আগামী জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবিও তুলতে চায় তারা। তবে কালের কণ্ঠে প্রকাশিত এক খবরে বলা হয়েছে, বিএনপি নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আগামী জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি তুললেও সেটিকে আমলে নিচ্ছে না ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। এই দাবিতে বিএনপির আন্দোলনের হাঁকডাকেও গা করছে না দলটি। এমন অবস্থায় নির্বাচন সামনে রেখে আবারও কি অচলাবস্থা সৃষ্টি হবে—এমন প্রশ্ন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মহলের।  

সংসদ নির্বাচন শুধু নয়, আদর্শগত দিক থেকেও দেশের প্রধান রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মধ্যে দূরত্ব রয়ে গেছে। অবশ্য রাজনীতিতে অসম্ভব বলে কোনো কথা নেই। বিএনপি ও আওয়ামী লীগের মধ্যে আজকের যে বিরোধ দৃশ্যমান, তা ঘোচানো খুব যে কঠিন কাজ, তা নয়। এ ক্ষেত্রে উভয় পক্ষকে সমঝোতার মনোভাব নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। দেশে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা সুসংহত করতে নির্বাচনের কোনো বিকল্প নেই। রাজনৈতিক দলগুলোকে দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে হবে। গণতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা বজায় রাখতে পরস্পরের মধ্যে একটি বোঝাপড়া থাকা অত্যন্ত জরুরি। রাজনৈতিক দলগুলো দায়িত্বশীলতার পরিচয় দেবে, এটাই আমাদের প্রত্যাশা।



সাতদিনের সেরা