kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৭ মাঘ ১৪২৭। ২১ জানুয়ারি ২০২১। ৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

টিকা নিয়ে দ্বিধা নয়

সচেতনতামূলক প্রচার চালাতে হবে

১৪ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এই মাসের শেষ দিকে দেশে করোনার টিকা আসছে। টিকা আনা ও দেওয়ার আনুষঙ্গিক প্রস্তুতি সম্পন্ন প্রায়; যদিও টিকা যাদের দেওয়া হবে সেসব মানুষকে প্রস্তুত করার কাজ এখনো বাকি। বিশেষজ্ঞরা বিস্তারিত তথ্য দিয়ে মানুষকে টিকা নেওয়ার জন্য প্রস্তুত করার তাগিদ দিয়েছেন। সরকারের পক্ষ থেকে প্রচার-প্রচারণা দ্রুত শুরু করার তাগিদও তাঁরা দিয়েছেন। টিকা ব্যবস্থাপনা ও পরিকল্পনায় প্রচার-প্রচারণার বিষয়টি রাখা হয়েছে বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

মানুষকে টিকা নেওয়ার জন্য প্রস্তুত করতে প্রচার-প্রচারণা চালানো এখন জরুরি। সেটা করা না হলে মানুষের আগ্রহে ভাটা পড়তে পারে। দেশে করোনার প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর মানুষ হুমড়ি খেয়ে পড়েছিল টেস্টের জন্য। সরকার তখন ঠিকমতো পরীক্ষার চাহিদা পূরণ করতে পারেনি। পরীক্ষায় ও চিকিৎসায় নানা অব্যবস্থাপনা মানুষকে দ্বিধাগ্রস্ত করে তুলেছিল। পরে অনেক টেস্টিং ল্যাব চালু হলেও মানুষ পরীক্ষায় আগ্রহ দেখায়নি। পরীক্ষা নিয়ে অনেক প্রতিষ্ঠান অনেক অনাচারও করেছে।

অনুরূপ ঘটনা টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রেও ঘটতে পারে, যদি আগেই মানুষকে সচেতন করা না হয়। সামাজিক-সাংস্কৃতিক প্রতিবন্ধকতাও এই অসচেতনতা বা অনীহার পেছনে কাজ করতে পারে, যেমন করেছিল করোনা সংক্রমণের প্রথম দিকে। অগ্রাধিকার বিবেচনায় সরকার যাদের তালিকা তৈরি করছে তাদের সবাই টিকা নেবে কি না সে ব্যাপারে প্রশ্ন রয়েছে। কেউ কেউ সরকার নির্ধারিত টিকা এড়িয়ে নিজের পছন্দের কোনো টিকা নিতে আগ্রহী হতে পারে। টিকা গ্রহণের ব্যাপারে এক ধরনের ভীতিও কাজ করছে। পর্যাপ্ত তথ্য না থাকায় এটা হচ্ছে। এ কারণেই বিশেষজ্ঞরা প্রচার-প্রচারণায় জোর দিয়েছেন।

করোনাবিষয়ক সচেতনতার অভাব রয়েছে বিশ্বজুড়েই; টিকা নেওয়ার ব্যাপারেও সন্দেহ রয়েছে। কিন্তু স্বাস্থ্যের বিবেচনা করে টিকা লভ্য হলে তা গ্রহণ করাই উচিত। এবিষয়ক সচেতনতা বা আগ্রহ সৃষ্টি করতে হবে মূলত স্বাস্থ্য বিভাগের লোকদের অর্থাৎ চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের। তথ্য মন্ত্রণালয়কেও কার্যকর ভূমিকা পালন করতে হবে। পোস্টার, লিফলেট, টেলিভিশন ও পত্রপত্রিকায় বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ কাজ করতে হবে। শুরুর দিকে টিকার প্রতি মানুষের আগ্রহ বেশি থাকলেও একপর্যায়ে তা কমে যেতে পারে। সেদিকে নজর রেখেই প্রচার-প্রচারণার পরিকল্পনা করতে হবে।

মানুষকে সচেতন করতে নানা ধরনের প্রচারকৌশল কাজে লাগাতে হবে। তথ্য যত আগে জানানো যাবে, মানুষ ততই নিজেকে প্রস্তুত করার সুযোগ পাবে। মানুষ যদি বোঝে টিকা উপকারী, তাহলে তারা ঠিকই তা গ্রহণে আগ্রহী হবে। সেটাই তাদের বোঝাতে হবে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা