kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৬ নভেম্বর ২০২০। ১০ রবিউস সানি ১৪৪২

পরীক্ষার ফল প্রকাশে জটিলতা

দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে হবে

১৮ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



করোনাভাইরাস মহামারির কারণে এবার প্রাথমিক থেকে এইচএসসি পর্যায় পর্যন্ত কোনো স্তরেই পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হয়নি। এসব পর্যায়ে বার্ষিক পরীক্ষার পাশাপাশি প্রাথমিকের সমাপনী, জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা রয়েছে। সামনে একটি এসএসসি পরীক্ষাও রয়েছে। এইচএসসি পরীক্ষা এরই মধ্যে বাতিল করে সব পরীক্ষার্থীকে উত্তীর্ণ ঘোষণা করা হয়েছে। মাধ্যমিক (এসএসসি) ও জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে আসছে ডিসেম্বরের মধ্যেই এইচএসসির ফল প্রকাশ করা হবে বলে জানা গেছে। কালের কণ্ঠে প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, এবার এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা না নিয়ে বিকল্প মূল্যায়ন প্রক্রিয়ায় ফল প্রকাশের সিদ্ধান্তের কারণে শিক্ষা বোর্ডগুলো একাধিক চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। এ ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি জটিলতা দেখা দিয়েছে বিভাগ পরিবর্তন করা শিক্ষার্থীদের ফল প্রকাশ নিয়ে। জেএসসি ও এসএসসির ভিত্তিতে এইচএসসির ফল প্রকাশ নিয়ে অনেক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক দুশ্চিন্তায়ও আছেন। যারা গত বছরের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা দিয়ে কাঙ্ক্ষিত ফল অর্জন করতে পারেনি, তারা এবার বেশি প্রস্তুতি নিয়ে মানোন্নয়ন পরীক্ষা দিতে চেয়েছিল; কিন্তু সেই সুযোগ আর পাচ্ছে না। আর জেএসসি ও এসএসসির ফল কিছুটা খারাপ থাকায় যারা এইচএসসিতে ভালো প্রস্তুতি নিয়েছিল, তারাও ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করছে। জটিলতা নিরসন ও যৌক্তিক সমাধান বের করতে বিশেষজ্ঞ কমিটি কাজ করছে। চলতি মাসের মধ্যেই বিভাগ পরিবর্তনজনিত গাইডলাইনের কাজ শেষ হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে।

ওদিকে মাধ্যমিকে পরীক্ষা ছাড়াই ওপরের শ্রেণিতে ওঠার সিদ্ধান্ত হলেও ‘অ্যাসাইনমেন্টের’ মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের দুর্বলতা জানার চেষ্টা করছে বিদ্যালয়গুলো। এ লক্ষ্যে এখন প্রতি সপ্তাহে তিনটি করে অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে হচ্ছে। করোনাভাইরাসের কারণে এবার মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা ছাড়াই ওপরের শ্রেণিতে উঠবে—প্রায় এক মাস আগে এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়; কিন্তু প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীরা কিসের ভিত্তিতে ওপরের শ্রেণিতে উঠবে সে বিষয়ে অস্পষ্টতা কাটেনি। সুনির্দিষ্ট পদ্ধতি বলে না দেওয়ায় মূল্যায়নের কাজ শুরু করতে পারছে না প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো।

মানতে হবে, করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাদের এই ক্ষতি কী করে পুষিয়ে নেওয়া যায় সে বিষয়ে ভাবতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো নতুন শিক্ষাবর্ষে ভর্তিপ্রক্রিয়া শুরু করতে যাচ্ছে। স্বাভাবিকভাবেই অবিলম্বে ফল প্রকাশ করা জরুরি হয়ে পড়েছে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা