kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ কার্তিক ১৪২৭। ২৯ অক্টোবর ২০২০। ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

চাঙ্গা হচ্ছে পুঁজিবাজার

বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফেরাতে হবে

২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আমাদের শেয়ারবাজার নিয়ে বিনিয়োগকারীদের অনেকের মনেই এক ধরনের শঙ্কা রয়েছে। দুই দফা বড় ধরনের ধসের পর বাজারে যে টালমাটাল অবস্থা তৈরি হয়েছিল, তার রেশ এখনো কাটেনি। আশার কথা, নতুন কমিশন দায়িত্ব নেওয়ার পর বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থা ফিরতে শুরু করেছে। বাজার সংস্কারে যেসব ব্যবস্থা নেওয়া হয়, তার ইতিবাচক ফলও পাওয়া যাচ্ছে। পুঁজিবাজারে ২০১৯ সালটা ভালো না গেলেও এ বছর বাজার চাঙ্গা করতে ব্যাংকের বিনিয়োগ বৃদ্ধি, মূলধন, ভালো কম্পানির আইপিও ও প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারী বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়। এতে মন্দাবস্থা থেকে পুঁজিবাজারের উত্তরণ ঘটতে শুরু করে। সুশাসন প্রতিষ্ঠায় নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের কড়া ভূমিকার কারণেই বিনিয়োগকারীদের আস্থা ফিরছে বলে বাজারসংশ্লিষ্টদের ধারণা। মহামারি শুরুর পর গত জুনে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স যেখানে ৪০০০ পয়েন্টের নিচে নেমে গিয়েছিল। জুন থেকে আগস্ট এই তিন মাসের চিত্রে দেখা যায়, মূল্যসূচক, লেনদেন ও বাজার মূলধনে বেশ এগিয়েছে পুঁজিবাজার। এই সময়ে বাজার মূলধন বেড়েছে ৭৩ হাজার ৯৩২ কোটি ৪৯ লাখ টাকা। আর সূচক বেড়েছে ১০০১ পয়েন্ট। ১ জুন লেনদেন ছিল ১৯৭ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। ৩১ আগস্ট সেই লেনদেন বেড়ে দাঁড়ায় এক হাজার ১৬৬ কোটি ৭৭ লাখ টাকা। মহামারি শুরুর পর গত জুনে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স যেখানে ৪০০০ পয়েন্টের নিচে নেমে গিয়েছিল। জুন মাসেই একপর্যায়ে লেনদেন নেমে গিয়েছিল ৫০ কোটির ঘরে; সেই দশা কাটিয়ে গত সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয়েছে ৮২৮ কোটি টাকার বেশি। বাজার কিভাবে নতুন করে ঘুরে দাঁড়াল? বিশ্লেষকরা মনে করছেন, নিয়ন্ত্রক সংস্থা সক্রিয় হওয়ায় সমন্বয়হীনতা কমেছে, তার সুফল পাচ্ছে বাজার। আস্থা বাড়ায় মানুষ এখন টাকা নিয়ে পুঁজিবাজারে আসছে। তারল্য সংকট না থাকায় ব্যাংকগুলোও পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করছে।

প্রকাশিত খবরে বলা হচ্ছে, বিএসইসির বর্তমান কমিশন দায়িত্ব নেওয়ার পর পুঁজিবাজারে সুশাসন ফেরাতে জোর দেওয়া হয়েছে। শেয়ার কারসাজিতে জড়িত কম্পানি ও চক্রের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়ে কোটি কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অর্থমন্ত্রীও সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, পুঁজিবাজার এখন অনেক শক্তিশালী। অন্য সময় ব্যাংক থেকে টাকা না দিলে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করতে আসত না। এখন কিন্তু রেমিট্যান্সের টাকা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ হচ্ছে। পুঁজিবাজারে লেনদেন বেড়েছে।

পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা—বিএসইসিকে ঢেলে সাজানো হয়েছে। বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসছে। এই আস্থা ধরে রাখতে পারলে দেশের পুঁজিবাজার আবার প্রাণ ফিরে পাবে, তাতে কোনো সন্দেহ নেই। তবে কারসাজিতে জড়িতদের সম্পর্কে সতর্ক থাকতে হবে।

 

মন্তব্য