kalerkantho

মঙ্গলবার । ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭। ১১ আগস্ট ২০২০ । ২০ জিলহজ ১৪৪১

আরেক দফা বন্যার শঙ্কা

সবাই মিলে মোকাবেলা করতে হবে

২৯ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতির শঙ্কা দেখা দিয়েছে। দেশের উত্তর ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলে আবার ভারি থেকে অতিভারি বৃষ্টিপাতের আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস এবং বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র। ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, আসাম ও মেঘালয় রাজ্যেও ভারি থেকে অতিভারি বৃষ্টিপাতের শঙ্কা রয়েছে। দিন দুয়েকের মধ্যে এই ভারি বর্ষণ শুরু হতে পারে। তেমন হলে অনিবার্যভাবে দেশের উত্তরাঞ্চল ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলের প্রধান নদ-নদীর পানি আবার বাড়বে। এর অর্থ, শিগগির উত্তরাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতির সম্ভাবনা নেই। গত কয়েক দিনে সারা দেশে টানা ভারি বৃষ্টি হয়েছে। এতে পরিস্থিতির আরো অবনতি ঘটেছে।

বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্রের তথ্য মতে, গঙ্গার পানি বাড়ছে। ঢাকার চারপাশের নদ-নদীর পানিও বাড়ছে। ঢাকার আশপাশে মুন্সীগঞ্জ, মানিকগঞ্জ ও গাজীপুরে শিগগির বন্যা পরিস্থিতির উন্নতির আশা করা যায় না। তাদের পর্যবেক্ষণাধীন ১০১টি পানি সমতল স্টেশনের মধ্যে ৬৪টির পানি কমেছে, বেড়েছে ৩৭টির। এখনো বিপত্সীমার ওপরে রয়েছে এমন স্টেশনের সংখ্যা ৩০ এবং নদীর সংখ্যা ২০। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের তথ্য মতে, এখন পর্যন্ত বন্যাকবলিত জেলার সংখ্যা ৩১। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৪৭ লাখ মানুষ। মৃতের সংখ্যা নিয়ে মতভেদ রয়েছে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয় বলছে, ২৭ জুন থেকে এখন পর্যন্ত বন্যায় মৃত্যু হয়েছে ৪১ জনের। বেসরকারি হিসাব বলছে, মৃতের সংখ্যা ১২০-এর ওপরে।

চলমান বন্যায় ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকার পূর্বাঞ্চলের নিম্নাঞ্চল বালু নদের পানিতে প্লাবিত হয়েছে। ঘরবাড়িতে পানি ঢুকেছে। কয়েক দিনের টানা বর্ষণ ও উত্তরাঞ্চল থেকে আসা বানের পানিতে রূপগঞ্জের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। শীতলক্ষ্যা ও বালু নদের পানি অনেক বেড়েছে। কয়েক শ পরিবার পানিবন্দি। শতাধিক মাছের খামার ভেসে গেছে। ডুবে গেছে ফসলি জমি ও রাস্তাঘাট। গোয়ালন্দে পদ্মায় পানি বেড়ে সংশ্লিষ্ট এলাকার বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। ঘরবাড়ি তলিয়ে যাওয়ায় কয়েকটি গ্রামের কয়েক হাজার মানুষ স্কুল, বেড়িবাঁধ ও মহাসড়কে আশ্রয় নিয়েছে। মানিকগঞ্জেও বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। প্রায় সব আঞ্চলিক কাঁচা-পাকা সড়ক পানিতে তলিয়ে গেছে।

আমাদের সবাইকে অগ্রবর্তী হতে হবে বন্যা মোকাবেলায়। প্রধানমন্ত্রী এ আহ্বান জানিয়েছেন। আর্ত-দুর্গত মানুষকে রক্ষার দায় আমাদের সবার। এটা সামাজিক দায়িত্ব; রাজনৈতিকও বটে। রাজনৈতিক দলগুলোকেও তৎপর হতে হবে। এখন পর্যন্ত সরকারের ভূমিকা সন্তোষজনক; কিন্তু এ দায়িত্ব শুধু সরকারের নয়। এ দায়িত্ব সবার।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা