kalerkantho

শুক্রবার । ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৮ রবিউস সানি ১৪৪১     

অস্থিরতা সৃষ্টির পাঁয়তারা

সরকারকে কঠোর অবস্থান নিতে হবে

২১ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অস্থিরতা সৃষ্টির পাঁয়তারা

বাজারে নিত্যব্যবহার্য পণ্যের দাম বাড়িয়ে ও গুজব ছড়িয়ে সারা দেশে অস্থিরতা সৃষ্টির পাঁয়তারা চলছে, এমন ধারণা অভিজ্ঞমহলের। এর পাশাপাশি শুরু হয়েছে অনৈতিক ও অবৈধ যানবাহন ধর্মঘট। ভোলার বোরহানউদ্দিনে নতুন করে সমাবেশ করার চেষ্টা চলছে। এসব ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকমহলের ধারণা, দেশে অস্থিরতা সৃষ্টির পাঁয়তারা চলছে। বাজারে অস্থিরতা সৃষ্টি করে একটি ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট মুনাফা লুটে নিয়েছে। রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে চাইছে কোনো কোনো মহল।

ঘটনাবলি পর্যবেক্ষণ করলে দেখা যায়, যৌক্তিক কোনো কারণ ছাড়াই পেঁয়াজের দাম আড়াই শ টাকা ছাড়িয়ে যায়। সরকারের হুঁশিয়ারি আর বিমানে করে পেঁয়াজ আমদানির খবরে রাতারাতি তা বেশ খানিকটা কমলেও এখন পর্যন্ত সাধারণ মানুষের নাগালে আসেনি। পেঁয়াজের দাম যখন কমতির দিকে, তখনই লবণের দাম বেড়ে যাচ্ছে বলে সারা দেশে নতুন করে গুজব ছড়ানো হয়। তাতে লবণ কেনার হিড়িক পড়ে যায়, দামও বেড়ে যায়। কালের কণ্ঠে প্রকাশিত খবরে বলা হচ্ছে, এই সংকটকে আরো গভীর করার জন্য একটি মহলের তৎপরতা লক্ষ করেছে সংশ্লিষ্ট দপ্তর ও গোয়েন্দা সংস্থাগুলো। সব মিলিয়ে সারা দেশে একটি অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টা হয়েছে বলেও সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলো সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছে। অবশ্য এই গুজব রোধে সরকারের মন্ত্রণালয়, গোয়েন্দা সংস্থা ও সংশ্লিষ্ট দপ্তর দ্রুততার সঙ্গেই মাঠে নামে। এরই মধ্যে দেশের কয়েকটি স্থান থেকে গুজব সৃষ্টিকারীদের আটক করা হয়েছে এবং ভ্রাম্যমাণ আদালত দণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছেন। সরকার প্রেস নোট দিয়ে জানিয়েছে, দেশে লবণের কোনো সংকট নেই। লবণ ব্যবসায়ী সমিতির নেতারাও জানিয়েছেন, দেশে লবণ সংকট নেই। তাঁদের হাতে পর্যাপ্ত লবণ রয়েছে। অস্থিতিশীল অবস্থা কাটিয়ে তুলতে মন্ত্রণালয়ে কন্ট্রোল রুমও খোলা হয়। লবণ নিয়ে গুজবের পেছনে কোনো চক্রের ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে ব্যবসায়ী ও সরকারি দলের অভিযোগ। পেঁয়াজের দাম কমে আসতে শুরু করেছে। লবণ-গুজবও সামাল দেওয়া গেছে। কিন্তু ভোক্তাদের বিশ্বাসে যে ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে তা কি সহজে কাটবে? আবার আমনের মৌসুমে বাজারে চালের দাম বাড়তে শুরু করেছে। এটাও ভালো লক্ষণ নয়।

ওদিকে সড়ক পরিবহন আইন সংশোধনের দাবিতে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের ধর্মঘটে দেশের বেশির ভাগ এলাকায় বাস, ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এক হিন্দু তরুণের ফেসবুক আইডি ‘হ্যাক করে’ মেসেঞ্জারে অবমাননাকর বক্তব্য ছড়ানোর পর ভোলার বোরহানউদ্দিনে এক সমাবেশ থেকে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনার এক মাসের মাথায় আবারও সমাবেশ করার চেষ্টা হচ্ছে। সব মিলিয়ে দেশের অভ্যন্তরে স্থিতিশীলতা নষ্টের চেষ্টা চলছে, এমন ধারণা করা যেতেই পারে। জনস্বার্থ বিবেচনায় স্থিতিশীলতা রক্ষায় সরকার কঠোর পদক্ষেপ নেবে, এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা