kalerkantho

রবিবার। ১৮ আগস্ট ২০১৯। ৩ ভাদ্র ১৪২৬। ১৬ জিলহজ ১৪৪০

নিজে বানাই

স্বপ্ন ধরার জাল

৩ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



স্বপ্ন ধরার জাল

দারুণ এ জিনিসটার নাম ড্রিমক্যাচার ওরফে স্বপ্ন ধরার জাল। স্বপ্ন ধরতে পারো আর না-ই পারো, জানালা কিংবা পড়ার রুমটার সৌন্দর্য বাড়িয়ে দিতে পারো অনেকখানি। পিন্টারেস্ট ডটকম থেকে দারুণ এ ড্রিমক্যাচার তৈরির ধাপগুলো বের করেছেন নূসরাত জাহান

 

যা যা লাগবে

একটি ৮-১০ ইঞ্চি ব্যাসের চাকতি। এটা কাঠেরও হতে পারে আবার ইস্পাতেরও হতে পারে।

রঙিন টেপ,

হলুদ ও লাল রঙের দড়ি,

সাদা সুতা,

নানা রঙের পুঁতি,

রং করা পালক (তুমি নিজেও রং করে নিতে পারো),

পমপম,

দড়ি দিয়ে বানানো ঝুমকা,

সাজানোর মতো আরো যা কিছু তোমার মাথায় আসে।

 

যেভাবে বানাবে

ছবি দেখেই তো বানানোর প্রক্রিয়াটা বুঝে ফেলেছ। তবে কাজের সুবিধার জন্য ধাপে ধাপে বলি।

প্রথমেই চাকতিটা ঢেকে দাও রঙিন ওয়াসি টেপ দিয়ে। ক্রাফটের দোকানেই পাবে এমন টেপ। এটা জুড়ে দিতেই দেখবে, চাকতিটার চেহারাই বদলে গেছে।

চাকতিতে দড়ি পেঁচাবে তারকার মতো করে। চাইলে নানা রঙের দড়ি দিয়ে একাধিক তারকার শেপও বানাতে পারো।

সাদা রঙের সুতোয় আগেই সাজগোজের জিনিসপত্রগুলো লাগিয়ে দাও। এ কাজে পমপমগুলো সেলাই করার মতো করে জুড়ে দিতে পারো কিংবা ব্যবহার করতে পারো আইকা আঠা।

সাদা সুতার শেষ মাথায় রং করা পালক বেঁধে তারপর তাতে পুঁতি বসাও। পুঁতি বসানোর সময় একবার এক রঙের পুঁতি ঢোকাবে। একই রঙের পুঁতি যেন পাশপাশি না থাকে। রঙে বৈচিত্র্যের বিষয়টি খেয়াল রাখবে পালকের বেলায়ও।

সব শেষে চাকতির নিচের দিকে বাঁয়ে একটা গোলাপি রঙের হার্ট বসিয়ে দিতে পারো। এ কাজে আঠা ব্যবহার না করে সুতা দিয়ে সেলাই করে দেওয়াই ভালো।

চাকতির মাঝেও আবার চাইলে আঠা দিয়ে নানা রঙের পমপম বসিয়ে দিতে পারো।

মন্তব্য