kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ঝটপট

কুয়াশা ফুলদানি

চারদিকে হিমহিম কুয়াশা। ঢাকায় দেখা না গেলেও গ্রামে কিন্তু ঠিকই উপচে পড়া কুয়াশা দেখা যাচ্ছে। আর সেই কুয়াশার থিমে একটা চমত্কার কুয়াশা-ফুলদানি বানালে কেমন হয়!

২৭ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কুয়াশা ফুলদানি

যা যা লাগবে

♦ ফ্রস্টেড গ্লাস পেইন্ট (অনলাইন শপে পাবে)।

♦ কাচের বোতল (পছন্দমতো আকৃতির, তবে সব বোতল এক মাপের হতে হবে)।

♦ চিকন বাঁশ।

♦ আঠা, সুতা ও কাঁচি।

যেভাবে বানাবে

প্রথমে বোতল পরিষ্কার করে নাও। এরপর শুকিয়ে নাও। বোতলের গড়নের ওপরই নির্ভর করছে ফুলদানিটা কত সুন্দর হবে।

এবার বোতলে ফ্রস্টেড গ্লাস পেইন্ট স্প্রে করে দাও। রং শুকিয়ে গেলেই দেখবে, স্বচ্ছ বোতলটা অস্বচ্ছ হয়ে একটা কুয়াশা ভাব এসেছে।

উলের সুতা দিয়ে বাঁশের সঙ্গে বোতল বেঁধে দাও। বাড়তি সতর্কতার জন্য বাঁধার আগে বোতলের এক পাশে আঠাও ব্যবহার করতে পারো। আবার আঠাযুক্ত এমন কিছু ফিতা পাওয়া যায়, যেগুলোর দুপাশেই আঠা থাকে। সেটার এক পাশ বোতলে, অন্য পাশ বাঁশে থাকবে। বিয়ের মধ্যে লোকের সমাগম হবে। শিশুরা এটা-ওটা ধরে খেলতে চাইবে। তাই হালকা বা মাঝারি ধাক্কা লাগলেও যেন বোতল পড়ে চৌচির না হয়, সে জন্যই বাড়তি সতর্কতা।

ছবির মতো বোতলটাকে ওপরে-নিচে দুবার বাঁধো। বাঁশ যদি লম্বায় পাঁচ ফুট আর দেড় ইঞ্চি ব্যাসের হয়, তবে আধা লিটারের চেয়ে একটু বড় সাইজের বোতল হলে ভালো মানাবে।

এবার বাঁশগুলো নির্দিষ্ট দূরত্ব পর পর মাটিতে ভালো করে পুঁতে দিতে হবে। বোতলে রেখে দাও নানা রঙের তাজা ফুল।

     —সাদিয়া ইসলাম বৃষ্টি

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা