kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৩ আষাঢ় ১৪২৮। ১৭ জুন ২০২১। ৫ জিলকদ ১৪৪২

লিভার রোগীর রোজা

অধ্যাপক ডা. মবিন খান, সাবেক বিভাগীয় প্রধান, লিভার বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়

১৭ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



লিভার রোগীর রোজা

বিভিন্ন পর্যায়ের লিভারের রোগী রয়েছে। সব রোগীর জন্য রোজা রাখা ক্ষতিকর নয়।

 

রোজা যাঁদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ

♦ উপসর্গযুক্ত জন্ডিস বা অ্যাকুইট হেপাটাইটিসে আক্রান্ত রোগী।

♦ লিভার সিরোসিসে আক্রান্ত ব্যক্তি, যাঁদের বর্তমানে পেটে পানি এসেছে অথবা জন্ডিস হয়েছে। রক্ত বমি বা কালো পায়খানা যাঁদের। খাদ্যনালিতে ব্যান্ড বা ইভিএলের মাধ্যমে চিকিৎসা করা হয়েছে যাঁদের। কথাবার্তা বা আচরণে অসংলগ্নতা দেখা যাচ্ছে যাঁদের। ডায়াবেটিস আছে এবং হাইপোগ্লাইসেমিয়ার ঝুঁকি রয়েছে যাঁদের।

♦ লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত ব্যক্তি, যাঁদের লিভারের কার্যক্ষমতা নষ্ট হয়েছে।

 

যাঁরা রোজা রাখতে পারবেন

♦ লিভার সিরোসিসে আক্রান্ত প্রাথমিক পর্যায়ের রোগী এবং যাঁদের উপরোক্ত লক্ষণগুলো নেই।

♦ ফ্যাটি লিভারে যাঁরা আক্রান্ত হয়েছেন, তাঁদের জন্য রোজা রাখা লাভজনক বা উপকারী।

♦ হেপাটাইটিস ‘বি’ ভাইরাস বাহক যাঁরা।

♦ ক্রনিক হেপাটাইটিস ‘বি’ এবং ক্রনিক হেপাটাইটিস ‘সি’-এ আক্রান্ত ব্যক্তিরা।

♦ লিভার ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগী, যাঁদের লিভারের কার্যক্ষমতা স্বাভাবিক রয়েছে।

♦ লিভার ট্রান্সপ্লান্ট গ্রহীতারা দক্ষ চিকিৎসকের পরামর্শে রোজা রাখতে পারবেন।

♦ গিলবার্ট সিনড্রোমে আক্রান্ত ব্যক্তিরা নিয়মিত সিরাম বিলিরুবিন মনিটরিংয়ের মাধ্যমে রোজা রাখতে পারবেন।



সাতদিনের সেরা