kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৩ মাঘ ১৪২৮। ২৭ জানুয়ারি ২০২২। ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

কর্নিয়ায় আলসার

অধ্যাপক মো. আনিসুর রহমান (আনজুম)   

২৫ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কর্নিয়ায় আলসার

আমাদের দেশে অন্ধত্বের অন্যতম একটি কারণ কর্নিয়ার আলসার বা কর্নিয়ায় ঘা। অথচ সঠিক সময়ে চিকিৎসায় এই ঘা সেরে গেলেও স্থায়ীভাবে দাগ সৃষ্টি হতে পারে। তবে সঠিক চিকিৎসা না হলে অন্ধত্ব অনিবার্য পরিণতি হয়ে দাঁড়ায়।

 

কারণ

ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস, ছত্রাক দ্বারা কর্নিয়ায় ঘা হয়ে থাকে।

বিজ্ঞাপন

ভিটামিন ‘এ’-এর অভাবেও কর্নিয়ায় ঘা হতে পারে। চোখে আঘাত পেলে অথবা নেত্রনালিতে রোগ থাকলে সহজেই কর্নিয়ায় আলসার হতে পারে। চোখে আঘাত পেলে অথবা নেত্রনালিতে রোগ থাকলে কর্নিয়ায় আলসার হয়। চোখে আঘাত বা চোখে পাতার রস ব্যবহার কর্নিয়ায় ছত্রাকজাতীয় ঘায়ের অন্যতম কারণ।

 

উপসর্গ

♦   চোখ দিয়ে পানি পড়া

♦   আলোতে অস্বস্তি

♦  চোখ ও মাথা ব্যথা

♦   চোখ লাল হয়ে যাওয়া

♦   কর্নিয়ায় সাদা ক্ষত হওয়া

♦   অ্যান্টিরিয়র চেম্বারে পুঁজ (হাইপোপিয়ান) জমা হওয়া

♦   দৃষ্টিস্বল্পতা দেখা দেওয়া।

 

চিকিৎসা

সংক্রামক জীবাণু নির্ণয় করে উপযুক্ত চিকিৎসা করতে হবে। তবে জীবাণু নির্ণয়ের জন্য চোখের ময়লা, পুঁজ পরীক্ষাগারে পাঠিয়ে উপযুক্ত চিকিৎসা নিতে হবে। ব্যাকটেরিয়া দ্বারা সংক্রমিত কর্নিয়ার ঘা অ্যান্টিবায়োটিক ড্রপ বা মলম দ্বারা চিকিৎসা করা হয়। কালো চশমা পরলে আলোতে অস্বস্তি হবে না। চোখে এট্রোপিন ড্রপ বা মলম ব্যবহার করলে চোখের ভেতরের মাংসপেশির বিশ্রাম হয়। ব্যথা উপশমের জন্য প্যারাসিটামল বড়ি ব্যবহার করা যেতে পারে। চোখের কাছে বা শরীরের অন্য কোথাও সংক্রমণ থাকলে তার চিকিৎসা করতে হবে।

 

সতর্কতা

কর্নিয়ার ক্ষতে স্টেরয়েড-জাতীয় কোনো ওষুধ ব্যবহার করা উচিত নয়। ভুলভাবে এ ওষুধ ব্যবহারের ফলে আমাদের দেশে অনেক লোক কর্নিয়ার ক্ষত থেকে অন্ধ হয়ে যায়।

 

লেখক : বিভাগীয় প্রধান, চক্ষু বিভাগ

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল

 



সাতদিনের সেরা