kalerkantho

রবিবার। ১৮ আগস্ট ২০১৯। ৩ ভাদ্র ১৪২৬। ১৬ জিলহজ ১৪৪০

এটিএম বুথে জালিয়াতি

ছয় ইউক্রেনীয় ফের চার দিনের রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের অটোমেটেড টেলার মেশিনে (এটিএম) জালিয়াতি করে বুথ থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত ইউক্রেনের ছয় নাগরিক পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) জিজ্ঞাসাবাদে মুখ খুলছে না। চতুর এই হ্যাকারদের তিন দিনের রিমান্ডে নিয়ে দোভাষীর সাহায্যে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন তদন্তকারীরা। গতকাল শনিবার প্রথম দফা রিমান্ড শেষে নতুন আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত আবার তাদের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

তদন্তসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা জানিয়েছেন, বিশেষ কার্ডে হ্যাকিংয়ের ধরন এবং জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত সহযোগীদের ব্যাপারে ছয়জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ভিতালি ক্লিমচাক নামে পলাতক আরেক ইউক্রেনিয়ানকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। দেশে আসা ইউক্রেনিয়ানসহ বিদেশিদের ব্যাপারে নজরদারি চলছে বলেও জানায় সূত্র।

ডিবির এক কর্মকর্তা জানান, গত বুধবার থেকে ছয় ইউক্রেনিয়ানকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়। এরা ইংরেজি না পারলেও রুশ ভাষা জানে। এ কারণে তাদের দোভাষীর মাধ্যমে কিছু বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হয়। চতুর এ হ্যাকাররা নিজেদের জড়িত থাকার কথাও অস্বীকার করছিল। একপর্যায়ে ক্লোজড সার্কিট (সিসি) টিভি ক্যামেরার ছবি দেখিয়ে বললে তারা অপকর্মে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে, কিন্তু এ ব্যাপারে বিস্তারিত কোনো তথ্য দেয়নি। গতকাল তাদের রিমান্ড শেষে ঢাকার মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। সেখানে তদন্ত কর্মকর্তা আরো সাত দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেন। আদালত আবার তাদের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গত ৩১ মে রাতে বাড্ডার ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে প্রায় চার লাখ টাকা তুলে নেয় দুজন বিদেশি। ১ জুন রাতে একইভাবে খিলগাঁওয়ের তালতলা মার্কেটের সামনের বুথে মুখোশ আর টুপি পরে টাকা তুলতে গিয়ে ধরা পড়ে দুজন। তবে নিরাপত্তাকর্মী জালালের হাত ফসকে পালিয়ে যায় একজন। আটক এ বিদেশি হলো ইউক্রেনের নাগরিক দেনিশ ভিতোমস্তি। খবর পেয়ে সেখানে যায় স্থানীয় থানা-পুলিশ ও ডিবির দল। দেনিশের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, পান্থপথের হোটেল ওলিও ড্রিম হ্যাভেন থেকে ভালেনতিন সোকোলোভস্কি, ভালোদিমির ত্রিশেনস্কি, নাজারি ভজনোক, সের্গেই উইক্রাইনেৎস, আলেগ শেভচুক নামের পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে ডিবি। এর আগেই সটকে পড়ে ভিতালি ক্লিমচাক নামের একজন।

মন্তব্য