kalerkantho

সোমবার । ২২ জুলাই ২০১৯। ৭ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৮ জিলকদ ১৪৪০

শ্রীনগরে গৃহবধূর ‘আত্মহত্যা’, স্বামী গ্রেপ্তার

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি   

১৩ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে স্বামীর নির্যাতনের বিরুদ্ধে লড়াই না করে গায়ে আগুন দিয়ে জিয়াসমিন (৪০) নামের এক গৃহবধূর আত্মহত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় পুলিশ আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে গৃহবধূর স্বামী মো. সিরাজুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করেছে। গত মঙ্গলবার রাত ২টার দিকে গাজীপুরের ভবানীপুর থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

শ্রীনগর উপজেলার শ্যামসিদ্ধি ইউনিয়নের সেলামতি গ্রামের গৃহবধূ জিয়াসমিন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে পাঁচ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মারা যান। গত শুক্রবার দুপুরে তাঁকে বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়।

এর আগে গত শুক্রবার দুপুরে জিয়াসমিন নিজের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার মতো হঠকারী কাজ করেন। তিনি অভিযোগ করেন, নির্যাতন সইতে না পেরে তিনি আত্মহননের পথ বেছে নেন। পরে স্থানীয় লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে প্রেরণ করেন। এ ঘটনায় জিয়াসমিনের ভাই আরিফ বাদী হয়ে সিরাজুল ইসলামকে আসামি করে শ্রীনগর থানায় মামলা দায়ের করেন।

মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শ্রীনগর সার্কেল) আসাদুজ্জামানের নেতৃত্বে শ্রীনগর থানার ওসি (তদন্ত) হেলাল উদ্দিনসহ পুলিশের একটি টিম গাজীপুর ও জয়দেবপুর পুলিশের সহায়তায় রাতভর অভিযান পরিচালনা করে সিরাজুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে। মৃত জিয়াসমিন কোলাপাড়া ইউনিয়নের ব্রাহ্মণ পাইকসা গ্রামের মৃত আ. আজিজ চৌধুরীর মেয়ে। প্রায় ২৩ বছর আগে সেলামতি গ্রামের সিরাজুল ইসলামের সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়।

 

মন্তব্য