kalerkantho

বুধবার । ২১ আগস্ট ২০১৯। ৬ ভাদ্র ১৪২৬। ১৯ জিলহজ ১৪৪০

স্পিকারকে চীনা রাষ্ট্রদূত

বাংলাদেশ চীনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বন্ধুপ্রতিম দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৪ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চীনের রাষ্ট্রদূত ঝ্যাং ঝুও বাংলাদেশকে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বন্ধুপ্রতিম দেশ হিসেবে অভিহিত করে বলেছেন, বাংলাদেশের সঙ্গে চীনের উন্নয়ন অংশীদারি দিন দিন শক্তিশালী হচ্ছে। এ উন্নয়ন সহযোগিতা অব্যাহত থাকার পাশাপাশি আগামী দিনে আরো বাড়বে।

গতকাল সোমবার স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে তাঁর সংসদ সচিবালয়ের কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে চীনা রাষ্ট্রদূত এসব কথা বলেন। তাঁরা দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক উন্নয়ন, বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপ গঠন নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। এ সময় বাংলাদেশে চীন দূতাবাসের পরিচালক ঝেং তিয়ান ঝু ও সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

চীন বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু উল্লেখ করে স্পিকার বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে চীনের এ সম্পর্ক ভবিষ্যতে আরো জোরদার করা হবে। বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন অংশীদার চীন। তিনি বাংলাদেশের অবকাঠামোগত উন্নয়নে চীনের ভূমিকার প্রশংসা করেন। ভবিষ্যতে এসব সহযোগিতা অব্যাহত রাখারও অনুরোধ জানান।

দুইবার চীন সফরের স্মৃতিচারণা করে স্পিকার বলেন, সফরে ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেস অব চীনের স্পিকার তাঁকে বেইজিংয়ে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান। এ সফরকে ফলপ্রসূ উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে চীন বেশ আন্তরিক। ভবিষ্যতে দুই দেশের সংসদ সদস্যদের সফরের বিনিময়ে এ সম্পর্কে নতুন মাত্রা যোগ হবে।

জবাবে চীনের রাষ্ট্রদূত বলেন, পারস্পরিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। আঞ্চলিক সংযোগ বৃদ্ধি এ অঞ্চলের সব দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি বয়ে আনবে। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্ব গুণ ও জনগণের প্রতি ভালোবাসার ভূয়সী প্রশংসা করেন।

মন্তব্য