kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৮ জুলাই ২০১৯। ৩ শ্রাবণ ১৪২৬। ১৪ জিলকদ ১৪৪০

অতিরিক্ত ভাড়া ও তালিকা না রাখা

এনা, হিমাচলসহ কয়েকটি পরিবহনকে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সায়েদাবাদ বাসস্ট্যান্ডে নির্ধারিত মূল্যের অতিরিক্ত দামে বাসের টিকিট বিক্রি করার অপরাধে হিমাচল এক্সপ্রেস ও হিমালয় এক্সপ্রেসকে জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। গতকাল রবিবার অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মণ্ডলের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়। এ সময় বাড়তি দামে টিকিট বিক্রি, টিকিটের মূল তালিকা না টাঙানোর অপরাধে এনা পরিবহনসহ মোট সাতটি পরিবহনকে জরিমানা করা হয়।

এর মধ্যে হিমাচল এক্সপ্রেস ও হিমালয় এক্সপ্রেসকে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। পরিবহন দুটির কাউন্টারে অতিরিক্ত দামে টিকিট বিক্রির প্রমাণ পায় অভিযান পরিচালনাকারী দলটি। পাশাপাশি বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) নির্ধারিত টিকিটের মূল্যতালিকা কাউন্টারে না থাকার অপরাধেও কয়েকটি পরিবহনকে জরিমানা করে। এর মধ্যে কে কে ট্রাভেলস, স্টার লাইন স্পেশাল, ড্রিম লাইন পরিবহন, এনা ট্রান্সপোর্ট ও আল বারাকা পরিবহনকে টিকিটের মূল্যতালিকা না টাঙানোর অপরাধে পাঁচ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়।

জানা গেছে, ঈদের আগে বাসের টিকিট পেতে হলে বাড়তি টাকা গুনতে হয়। এই অনিয়ম অনেকটা নিয়মেই পরিণত হয়েছে। তবে এর প্রতিকারে কাজ করছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। কোনো বাসের কাউন্টার থেকে যদি নির্ধারিত ভাড়ার বেশি নেওয়া হয়, তবে অধিদপ্তরে লিখিত অভিযোগ করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

আব্দুল জব্বার মণ্ডল কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমাদের কাছে অভিযোগ ছিল কোনো কোনো কাউন্টারে দুই গুণ, তিন গুণ বেশি দামে টিকিট বিক্রি হয়েছে। এর বিরুদ্ধে আমরা অভিযান পরিচালনা করেছি। প্রথম অবস্থায় মূলত সতর্ক করা হয়েছে। তারপর কথা না শুনলে তাদের বড় শাস্তির আওতায় আনা হবে।’

এই কর্মকর্তা বলেন, ‘কোনো যাত্রীর কাছ থেকে বাড়তি ভাড়া নেওয়া হলে, সে যদি অধিদপ্তরে লিখিত অভিযোগ করে তবে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’ এ কারণে কোনো অভিযোগ থাকলে তা সরাসরি অধিদপ্তরকে জানানোর অনুরোধও করেন তিনি।

অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মাসুম আরেফিনের নেতৃত্বে একটি দল গাবতলীতে তদারকি অভিযান পরিচালনা করে। এখানেও অধিকাংশ কাউন্টারেই ভাড়ার মূল্যতালিকা পাওয়া যায়নি। যে কারণে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিয়েছেন অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

মন্তব্য