kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ৭ রবিউস সানি ১৪৪১     

নিরাপত্তা হুমকি নেই : র‌্যাব

বর্ষবরণের সব অনুষ্ঠানস্থল থাকছে সিসিটিভির আওতায়

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



র‌্যাবের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক কর্নেল জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, বাংলা বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে কোনো নিরাপত্তা হুমকি নেই। রাজধানীসহ দেশজুড়ে বর্ষবরণ অনুষ্ঠানে র‌্যাব নিরাপত্তা দেবে। রাজধানীর অনুষ্ঠানস্থলগুলো থাকবে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার আওতায়। আর কেউ ইভ টিজিং করলেই তাকে ধরে ভ্রাম্যমাণ আদালত সঙ্গে সঙ্গে সাজা দেবেন।

গতকাল শুক্রবার সকালে রমনা পার্কে নিরাপত্তা আয়োজন দেখতে এসে কর্নেল জাহাঙ্গীর আলম সাংবাদিকদের এসব কথা জানান। এ সময় র‌্যাবের ডগ স্কোয়াড দিয়ে রমনা পার্কে তল্লাশি চালানো হয়।

র‌্যাবের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক জানান, বর্ষবরণের অনুষ্ঠানের জন্য রমনা পার্ক, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা, ধানমণ্ডিসহ বিভিন্ন এলাকায় নিরাপত্তাবলয় গড়ে তুলবে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। সম্ভাব্য নাশকতা এড়াতে রাজধানীর সব অনুষ্ঠানস্থলে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা বসিয়ে নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণ করছে র‌্যাব। বর্ষবরণের নিরাপত্তায় র‌্যাবের বেশির ভাগ সদস্য মোতায়েন থাকবে।

তিনি আরো বলেন, ‘রমনা বটমূল, ধানমণ্ডির রবীন্দ্রসরোবর, বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বর্ষবরণের বড় অনুষ্ঠান হয়ে থাকে। এ ছাড়া অন্যান্য স্থানে অনুষ্ঠান হয়ে থাকে। এসব অনুষ্ঠানে নিরাপত্তাব্যবস্থা এবং সম্ভাব্য নাশকতা এড়াতে র‌্যাবের পক্ষ থেকে বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।’

রাজধানীতে যতগুলো স্থানে অনুষ্ঠান হবে সেখানে শতভাগ নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। বড় অনুষ্ঠানস্থলগুলোর সার্বিক নিরাপত্তা কার্যক্রম মনিটরিং করতে কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালতসহ মেডিক্যাল টিম গঠন করা হয়েছে। রাজধানীতে বর্ষবরণ উপলক্ষে সব ভেন্যু সিসিটিভির আওতায় আনা হবে। রমনা বটমূলসহ গুরুত্বপূর্ণ সব ভেন্যুতে ডগ স্কোয়াডসহ বম্ব ডিসপোজাল ইউনিট সুইপিং করবে।

র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়, নির্বিঘ্নে বর্ষবরণের অনুষ্ঠান উদ্যাপনে রমনায় স্ট্রাইকিং রিজার্ভ, ইভ টিজিং রোধে মোবাইল কোর্ট দায়িত্ব পালন করবেন। টহল, ফুট পেট্রল, ওয়াচ টাওয়ার, মোটরসাইকেল পেট্রলের ব্যবস্থা থাকছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা