kalerkantho

বুধবার । ২৬ জুন ২০১৯। ১২ আষাঢ় ১৪২৬। ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

ব্লগার অভিজিৎ হত্যা

মামলার নথি সন্ত্রাস দমন ট্রাইব্যুনালে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুক্তমনা ব্লগার ও লেখক অভিজিৎ রায় হত্যা মামলার নথি সন্ত্রাস দমন ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়েছে। গতকাল সোমবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সরাফুজ্জামান আনসারী চার্জশিটে (অভিযোগপত্র) স্বাক্ষর করে বিচারের জন্য মামলাটি ট্রাইব্যুনালে বদলি করেন বলে ওই আদালতে পুলিশের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা এসআই নিজাম উদ্দিন জানিয়েছেন।

মামলার নথি সন্ত্রাস দমন ট্রাইব্যুনালে গেলে প্রথমে পলাতক আসামিদের বিরুদ্ধে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হবে। এরপর আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নেওয়ার পর বিচার শুরু হবে।

আনসার আল ইসলামের শীর্ষ নেতা সৈয়দ মো. জিয়াউল হক ওরফে জিয়াসহ (চাকরিচ্যুত মেজর) ছয়জনের বিরুদ্ধে গত ১৪ মার্চ আদালতে চার্জশিট দেয় পুলিশের কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি)। মামলায় সাদেক আলী ওরফে মিঠুসহ ১৫ জনকে অব্যাহতির আবেদনও করেন তদন্ত কর্মকর্তা।

জিয়া ছাড়া অন্য আসামিরা হলেন মোজাম্মেল হুসাইন ওরফে সায়মন (সাংগঠনিক নাম শাহরিয়ার), আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব ওরফে সাজিদ ওরফে শাহাব, আকরাম হোসেন ওরফে আবির, আরাফাত রহমান ও শফিউর রহমান ফারাবি। মেজর জিয়া ও আকরাম হোসেন পলাতক রয়েছেন। এ ছাড়া এ মামলায় মুকুল রানা ওরফে শরিফুল ইসলাম ওরফে হাদী আসামি থাকলেও ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হওয়ায় চার্জশিটে তার নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। 

চার্জশিটে বলা হয়েছে, অভিজিতের লেখালেখি ও ভিন্নমত পোষণের জন্য তাঁকে অনেক আগেই টার্গেট করা হয়। তাঁর ‘বিশ্বাসে ভাইরাস’ শিরোনামের দুটি বইকে কেন্দ্র করে হত্যার সিদ্ধান্ত নেয় নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলাম। তাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী অভিজিৎ রায়কে ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি রাতে একুশে গ্রন্থমেলা থেকে ফেরার পথে টিএসসি এলাকায় কুপিয়ে হত্যা করে জঙ্গিরা।

মন্তব্য