kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

আচরণবিধি মানছে না কেউই

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

৬ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আচরণবিধি মানছে না কেউই

ডাকসু নির্বাচনের প্রচারণায় আচরণবিধি মানছেন না কোনো প্যানেলের প্রার্থীরাই—এমন অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগ, ছাত্রদল, বামপন্থী ছাত্রসংগঠন ও সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদসহ স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বিরুদ্ধে। গতকাল মঙ্গলবার ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে প্রচারণা চলাকালে এ অবস্থা দেখা যায়।

ডাকসু নির্বাচনের আচরণবিধির ৩(ক) ধারায় বলা হয়েছে, ‘নির্বাচনী প্রচারণায় কোনো ধরনের যানবাহন, যেমন মোটরকার, মোটরসাইকেল, রিকশা, ঘোড়ার গাড়ি, হাতি, ব্যান্ড পার্টি নিয়ে কোনোরূপ শোভাযাত্রা বা মিছিল করা যাবে না।’ আচরণবিধির ৪(গ) ধারায় বলা হয়েছে, ‘ভোটার বা প্রার্থী ছাড়া অন্য কেউ কোনোভাবেই কোনো প্রার্থীর পক্ষে বা বিপক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রচারণা চালাতে পারবেন না।’

কিন্তু বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, দুপুর ১২টার দিকে ক্যাম্পাসে ব্যান্ড পার্টিসহ ‘গানের মিছিল’ বের করেন বাম ছাত্রসংগঠনগুলোর মোর্চা ‘প্রগতিশীল ছাত্রজোট ও সাম্রাজ্যবাদবিরোধী ছাত্র ঐক্য’ সমর্থিত যৌথ প্যানেলের প্রার্থীরা। শোভাযাত্রায় জোটের বেশ কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতাকে দেখা যায়, যাঁরা ডাকসুর ভোটার বা প্রার্থী নন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্র ইউনিয়নের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা আজকে গানের মিছিল করেছি। তবে ব্যান্ড পার্টি ব্যবহার করা হয়নি।’ আর আচরণবিধিতে এ বিষয়ে কিছু বলা হয়নি বলেও দাবি করেন তিনি। কেন্দ্রীয় নেতাদের অংশগ্রহণের বিষয়ে তিনি বলেন, তাঁদের কেন্দ্রীয় নেতারা যেহেতু বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ পরিষদের সদস্য, তাই প্রচারণায় তাঁরা থাকতেই পারেন।

অভিযোগ উঠেছে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের বিরুদ্ধেও। গতকাল দুপুরে কলাভবনের সামনে তাদের প্রচারণায় সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুনকেও অংশ নিতে দেখা যায়। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা শেষ করেছেন। বর্তমানে কোথাও ভর্তি নেই। জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি সংগঠনের প্যানেলের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান। সেই হিসেবে আমি প্রচারণায় থাকতেই পারি।’

ক্যাম্পাসের বিভিন্ন এলাকায় ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের প্রচারণায় কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি আল মেহেদী তালুকদার ও সাধারণ সম্পাদক অংশ নেন। এই তিন নেতার ছাত্রত্ব নেই। এ ছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চালানো ছাত্রদলের প্যানেলটির প্রচারণাপত্রে জিয়াউর রহমান, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের ছবি ব্যবহার করা হয়েছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা