kalerkantho

শুক্রবার । ২২ নভেম্বর ২০১৯। ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে অবৈধ স্থাপনা

উচ্ছেদে সন্তোষ এলাকাবাসীর

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



উচ্ছেদে সন্তোষ এলাকাবাসীর

গতকাল সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত চলে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক দখল করে নির্মিত অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ। ছবি : কালের কণ্ঠ

ঢাকার অদূরে সাভারে প্রভাবশালীদের দখলে থাকা ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক দখল করে নির্মাণ করা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে সাভারের হেমায়েতপুর বাসস্ট্যান্ডে অবৈধ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ উচ্ছেদ অভিযানে নেতৃত্ব দেন সাভারের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফখরুল আলম সমর।

এ সময় সড়কে যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টিকারী সব ধরনের অবৈধ স্থায়ী-অস্থায়ী স্থাপনা ও ঝুঁকিপূর্ণ লোহা দিয়ে নির্মিত বড় বড় বিলবোর্ড ও দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়। অভিযানে প্রয়োজনীয় সহায়তা করেছে সাভার মডেল থানা পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, এলাকার বেশ কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যক্তি ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের হেমায়েতপুর বাসস্ট্যান্ডের সড়ক ও জনপথ বিভাগের জমি দখল করে দোকানপাট ও বাড়িঘর নির্মাণ করে ভাড়া দিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল। এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার এ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফখরুল আলম সমর। এ উচ্ছেদে সন্তোষ প্রকাশ করেছে এলাকাবাসী ও সড়ক ব্যবহারকারী সাধারণ মানুষ।

এ বিষয়ে তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফখরুল আলম সমর কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘অবৈধ দখলদারদের একাধিকবার মৌখিক ও লিখিতভাবে সরে যাওয়া জন্য জানানো হয়েছিল। এর পরও তারা কোনো কর্ণপাত করেনি। ফলে বাধ্য হয়ে এই উচ্ছেদ অভিযান চালানো হচ্ছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘বৃষ্টি-বাদলের দিনে সহজেই রাস্তা নষ্ট হয়ে যায়। অল্প বৃষ্টিতেই সৃষ্টি হয় জলাবদ্ধতা। ঝড়-বাদলের দিন আসন্ন। অবৈধ স্থাপনার কারণে বৃষ্টি হলেই সড়কের পাশে পানি জমে থাকে। সড়কের পাশে বৃষ্টির জমে থাকা পানি যাতে সহজে ড্রেনে পড়তে পারে এ লক্ষ্যেই এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। তা ছাড়া সড়কে জননিরাপত্তা ও যানজট নিরসনেও রাস্তার পাশের সব ধরনের অবৈধ স্থাপনা ও ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ড উচ্ছেদ করা হয়েছে। আগামীকালও বাকি অংশে এ উচ্ছেদ অভিযান চলবে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা