kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ নভেম্বর ২০১৯। ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

হোটেল তাজমহল পিরামিডে ধর্ষণ

মূল হোতা সাহাদাত গ্রেপ্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মূল হোতা সাহাদাত গ্রেপ্তার

ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত সাহাদাত

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয় হোটেল তাজমহল পিরামিডে কিশোরী ধর্ষণ ঘটনার মূল হোতা ধর্ষক সাহাদাত হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রবিবার গভীর রাতে গাজীপুর মহানগরীর কোনাবাড়ী এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১। আলোচিত ধর্ষক সাহাদাত নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের মধুখালী গ্রামের মৃত সাহাবুদ্দিনের ছেলে।  

র‌্যাব ১-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল মো. সারওয়ার-বিন-কাশেম জানান, সাহাদাত (৩৮) ১৬ বছরের সহজ-সরল এক কিশোরীকে বেড়ানোর কথা বলে চলতি বছরের ২৪ জানুয়ারি দুপুরে ফুসলিয়ে হোটেল তাজমহল পিরামিডে নিয়ে যায়। সেখানে একটি রুমে উঠে কোমল পানীয় এবং জুসের সঙ্গে উত্তেজক ও নেশাজাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে কিশোরীকে পান করায় এবং জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। বাধা দিতে গেলে জোরজবরদস্তি করে কিশোরীকে মারাত্মক জখমও করে। সাহাদাত গোপনে ধর্ষণ ঘটনার একাংশ মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে এবং ভয় দেখিয়ে সম্পূর্ণ ঘটনা গোপন রাখবে মর্মে কিশোরীর কাছ থেকে জোরপূর্বক স্বীকারোক্তি আদায় করে। বাড়ি ফিরে কিশোরী সব খুলে বললে তার মা বাদী হয়ে সোনারগাঁও থানায় মামলা করেন। মামলার পর থেকে সে পালিয়ে গাজীপুরের কোনাবাড়িতে আশ্রয় নিয়েছিল। তিনি আরো জানান, ওই কিশোরী ঘটনার আগে সাহাদাতকে চিনত না। দরিদ্রতার সুযোগ নিয়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ঘটনার দু-তিন মাসে আগে স্থানীয় এক নারী সুমন নামে এক যুবকের সঙ্গে কিশোরীর মোবাইল ফোনে পরিচয় করিয়ে দেয়। সাহাদাতের পরিকল্পনা অনুযায়ী সুমন ঘটনার দিনে কিশোরীকে দুপুরে দেখা করতে বলে। কথা অনুযায়ী কিশোরী সোনারগাঁও উপজেলার পেরাব এলাকায় গেলে সাহাদাত সুমন কিশোরীর সরলতার সুযোগ নিয়ে ওই হোটেলে নিয়ে যায়।

 

 

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা