kalerkantho

ধুলা-ধোঁয়ায় নাকাল এলাকাবাসী জমে উঠছে প্রচারণা

ওমর ফারুক   

১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ধুলা-ধোঁয়ায় নাকাল এলাকাবাসী জমে উঠছে প্রচারণা

একদিকে কল-কারখানার কালো ধোঁয়া অন্যদিকে ধুলা। দুইয়ে মিলে নাকাল ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নবসৃষ্ট ৫৮ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দারা। ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রোডের পাশের এ এলাকাটি শ্যামপুর ইউনিয়ন পরিষদের অধীন ছিল। এবার সেটি ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের অধীনে চলে গেছে। সিটি করপোরেশনের অধীনে যাওয়ায় সাধারণ মানুষ বেশ খুশি। তাদের আশা এত দিন যে ধুলা, ধোঁয়া ও জলাবদ্ধতার কষ্ট ছিল, তা থেকে এবার মুক্তি মিলবে।

অন্যদিকে গত কয়েক দিন ডিএসসিসির নতুন ওয়ার্ডগুলোতে ঘুরে ভোট নিয়ে ভোটারদের আগ্রহ দেখা যায়নি। কিন্তু গতকাল ৫৮ নম্বর ওয়ার্ডে গিয়ে দেখা গেছে, প্রচারণা শুরু করেছেন প্রার্থীরা। রবিবার মার্কা পাওয়ার পর গতকালও কোনো পোস্টার দেখা যায়নি। তবে ব্যানার টানাতে দেখা গেছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কদমতলী, আলী বহর, শ্যামপুর বাজার এলাকায় স্টিল মিল ও রি-রোলিং মিল রয়েছে। এসব কারখানার ধোঁয়ায় অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়ছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। অভিযোগ রয়েছে, শ্যামপুর বাজারের পাশে হানিফ স্টিল মিল থেকে অধিক কালো ধোঁয়া নির্গত হয়। শুধু অভিযোগই নয়, এর থেকে পরিত্রাণের জন্য এলাকাবাসী দীর্ঘদিন ধরে অন্দোলনও করছে। ওই এলাকায় রয়েছে শ্যামপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, শ্যামপুর মাদরাসা, প্রাইমারি স্কুলসহ নানা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। স্কুল শিক্ষার্থীরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাওয়ার সময় কালো ধোঁয়ার কারণে কষ্ট পায়।

এলাকার বাসিন্দা নূর উদ্দিন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা কালো ধোঁয়া ও রাস্তার ধুলায় অতিষ্ঠ। এর ফলে আমরা অসুস্থ হয়ে পড়ছি। এ নিয়ে পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কোনো কাজ হয়নি।’ আরেক বাসিন্দা কামরুল হক বলেন, ‘এ এলাকায় বৃষ্টির সময় আমাদের পানিবন্দি হয়ে থাকতে হয়। এসব দেখার যেন কেউ নেই।’ শ্যামপুর বাজারের নজরুল হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল হলের ডা. শেখ নজরুল ইসলাম জানান তাঁর দুঃখের কথা। তিনি বলেন, ‘আমার বাড়ির ছাদে গাছ লাগিয়েছি। কালো ধুয়ায় গাছ মরে গেছে।’

এবার এই ওয়ার্ডে সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে চারজন প্রার্থী হচ্ছেন। তাঁদেরই একজন নার্গিস আক্তার। কথা হয় তাঁর সঙ্গে। তিনি বলেন, ‘আমি আনারস মার্কা নিয়ে নির্বাচন করছি। যদি নির্বাচিত হতে পারি এলাকাকে দূষণমুক্তসহ নানা উন্নয়নে কাজ করব।’ অন্যদিকে জমে উঠছে প্রচারণা। গতকাল দুপুরে কদমতলী থানাধীন শ্যামপুর বাজারে থাকা শ্যামপুর ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ের সামনে কাউন্সিলর পদে হাজি মো. রাসেল ইকবালের ছবি সংবলিত একটি ব্যানার টানানো দেখা যায়। তিনি লাটিম মার্কায় ভোট চেয়ে প্রচারণার অংশ হিসেবে এ ব্যানার টানিয়েছেন। এবারের নির্বাচনে কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচন করতে যাচ্ছেন বিলুপ্ত হওয়া শ্যামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শফিকুর রহমান সাইজুল।

মন্তব্য