kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০২২ । ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আর্টেমিস অভিযান

চাঁদের খুব কাছ ঘেঁষে এগিয়ে গেল ওরিয়ন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৪ নভেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চাঁদের খুব কাছ ঘেঁষে এগিয়ে গেল ওরিয়ন

চাঁদের খুব কাছ ঘেঁষেও আবার দূরে সরে নিজের পথে এগিয়ে গেল নাসার মহাকাশযান। তবে চন্দ্রপৃষ্ঠের মাত্র ১৩০ কিলোমিটার দূরে থাকায় একে কার্যত উপগ্রহটিতে পৌঁছানোর মতো করেই দেখা হচ্ছে।

আর্টেমিস প্রকল্পের অংশ হিসেবে মহাকাশে পাঠানো ওরিয়ন নামের যানটি এখন ছুুটছে আরো দূর থেকে চাঁদকে প্রদক্ষিণ করার কক্ষপথে। আর্টেমিস প্রকল্পের লক্ষ্য, কয়েক বছরের মধ্যেই আবার মানুষকে চাঁদের মাটিতে পাঠানো।

বিজ্ঞাপন

চাঁদের খুব কাছে যাওয়ার এক পর্যায়ে ৩৪ মিনিট নাসার সঙ্গে ওরিয়নের কোনো যোগাযোগ ছিল না। তবে যোগাযোগ সমস্যা ঠিক হয়ে যাওয়ার পর নাসার কাছে সেখান থেকে তোলা পৃথিবীর ছবি পাঠায় মহাকাশযানটি।

 মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা বলছে, গত সপ্তাহে উেক্ষপণের পর এখন পর্যন্ত ‘প্রত্যাশার চেয়েও বেশি’ ভালোভাবে চলছে অভিযান।

নাসার ফ্লাইট পরিচালক জেবুলন স্কোভিলে বলেন, ‘আমরা কয়েক বছরের মধ্যেই মানুষকে চাঁদের বুকে ফিরিয়ে নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি। এটি হবে পুরোপুরি পরিস্থিতি বদলে দেওয়ার মতো ঘটনা। ’ গত বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে শুরু হয় আর্টেমিস প্রকল্পের প্রথম পর্যায়ের অভিযান। সেদিন নিজেদের তৈরি এ পর্যন্ত সবচেয়ে শক্তিশালী রকেটের মাধ্যমে ওরিয়ন যানটি উৎক্ষেপণ করে নাসা।

চাঁদের কাছাকাছি যাওয়ার পর সেখানে অ্যাপোলো ১১, ১২ এবং ১৪ মহাকাশযানের অবতরণের জায়গা জুম করে দেখিয়েছে ওরিয়ন। চাঁদের পথে যাত্রা শুরু করার পর ক্যাপসুলটি এরই মধ্যে একাধিক সেলফি তুলেও পাঠিয়েছে। পরীক্ষামূলক ফ্লাইট হওয়ার কারণে এবার এ মহাকাশযানে কোনো নভোচারী রাখা হয়নি। যানের ভেতরে তিনটি মানুষসদৃশ পুতুল রয়েছে। সেগুলোর গায়ে হাজারো সেন্সর জুড়ে দেওয়া হয়েছে।

নাসার নভোচারী জেনা কার্ডম্যান বলেন, ‘মানুষের জন্য পরিবেশটা ঠিক হবে কি না, ওই সেন্সরগুলো মূলত সে ধারণা নেওয়ার চেষ্টা করছে। ’ সূত্র : বিবিসি।

 

 



সাতদিনের সেরা