kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১ ডিসেম্বর ২০২২ । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ ।  ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

প্রাকৃতিক সম্পদ এখনো আছে আমরা রক্ষা করেছি বলেই

আদিবাসী অধিকারকর্মীর মন্তব্য

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কে চলছে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশন। পাশেই জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে পরিবেশ সপ্তাহের কর্মসূচিতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন দেশের আদিবাসীরা। এ সময় ইকুয়েডরীয় আদিবাসী অধিকারকর্মী ডমিঙ্গো পিস বলেন, “পৃথিবীতে এখনো ‘প্রাকৃতিক সম্পদের ভাণ্ডার’ থাকার কারণ হচ্ছে আমরা হাজার হাজার ধরে সেগুলো রক্ষা করেছি। ”

বনভূমি ধ্বংসের বিরুদ্ধে গত তিন দশক ধরে লড়াই করছেন ডমিঙ্গো পিস।

বিজ্ঞাপন

পরিবেশ রক্ষায় ব্যাপক গুরুত্বপূর্ণ হওয়া সত্ত্বেও রাষ্ট্র ও বিভিন্ন কম্পানি কয়েকটি দেশজুড়ে বিস্তৃত আমাজন ধ্বংস করে যাচ্ছে। এতে ৫৮ বছর বয়সী পিস দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, ভবিষ্যৎ প্রজন্ম তথা মানবতার জন্য আমাজনকে অবশ্যই অক্ষত রাখতে হবে।

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, পৃথিবীর গ্রীষ্মমণ্ডলীয় মোট বনভূমির ৮০ শতাংশের (৮০ কোটি হেক্টর) অবস্থানই আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকায়। এসব বনভূমি ধ্বংসের জন্য অনেক আদিবাসীই পুঁজিবাদকে দায়ী করে থাকেন।

‘আমাজন স্যাকরেড হেডওয়াটার ইনিশিয়েটিভ’ শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়নে তহবিল আহ্বান করেছেন ডমিঙ্গো পিস। প্রকল্পের আওতায় পেরু ও ইকুয়েডরে থাকা আমাজনের সাড়ে তিন কোটি হেক্টর রেইনফরেস্ট রক্ষা করা হবে। এসব এলাকায় ৩০টি আদিবাসী সম্প্রদায়ের প্রায় ছয় লাখ মানুষের বাস।

একটি নতুন ‘জৈব-অর্থনীতি’ প্রকল্পে কাজ করছেন পিস। আদিবাসী তরুণরা যাতে মাতৃভূমি থেকে স্থানান্তরিত না হয় সে জন্য এই প্রকল্পের আওতায় জ্বালানি শক্তির নতুন উৎস, পর্যটন কর্মসূচি ও অন্যান্য উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। সূত্র : এএফপি



সাতদিনের সেরা