kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০২২ । ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ । ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

বিলকিস মামলা

অপরাধীর মুক্তি নিয়ে গুজরাট সরকারকে আদালতের নোটিশ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৬ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অপরাধীর মুক্তি নিয়ে গুজরাট সরকারকে আদালতের নোটিশ

বিলকিস বানু

নির্যাতিত বিলকিস বানুর ঘটনায় ১১ অপরাধীর মুক্তির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মামলায় গুজরাট সরকারকে গতকাল বৃহস্পতিবার নোটিশ দিয়েছেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। ১১ ধর্ষণকারীর মুক্তির বিষয়ে গুজরাট সরকারকে জবাব দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মামলায় ১১ অপরাধীকেও যুক্ত করতে নির্দেশ দিয়েছেন সর্বোচ্চ আদালত। আগামী দুই সপ্তাহ পর আবার এই মামলার শুনানি হবে।

বিজ্ঞাপন

দেশের ৭৬তম স্বাধীনতা দিবস ১৫ আগস্ট সাজাপ্রাপ্ত ১১ জনকে ১৫ বছর সাজাভোগের পর মুক্তি দেয় গুজরাট সরকার। আগাম মুক্তির জন্য শীর্ষ আদালতে আবেদন জানিয়েছিল এক অপরাধী। সেই আবেদনের ভিত্তিতে রাজ্য সরকারকে সিদ্ধান্ত নিতে বলেছিল আদালত। এর পরই গোধরা জেল থেকে ১১ জনকে মুক্তি দেওয়া হয়।

অপরাধীদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়। এ ঘটনায় দেশের বিভিন্ন মহলে সমালোচনা হচ্ছে।

গত ২৩ আগস্ট বিলকিসের ধর্ষকদের মুক্তির সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন সিপিআইএমের পলিটব্যুরো সদস্য সুভাষিণী আলি, তৃণমূল সংসদ সদস্য মহুয়া মৈত্র প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, ২০০২ সালে গোধরাকাণ্ডের পর গুজরাটে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার মধ্যে ৩ মে দাহোড় জেলার দেবগড় বারিয়া গ্রামে ভয়াবহ হামলা চালানো হয়। গ্রামের বাসিন্দা পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা বিলকিস বানুকে গণধর্ষণ করা হয়।

পরিবারটির আরো কয়েকজন সদস্যকে হত্যা করা হয়। এই অপরাধকে ‘বিরল থেকে বিরলতম’ আখ্যা দিয়ে মুম্বাইয়ের সিবিআই আদালতে কঠোর সাজার পক্ষে যুক্তি দিয়েছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। ২০০৮ সালের ২১ জানুয়ারি মোট ১২ জনের বিরুদ্ধে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায় দিয়েছিলেন ওই বিশেষ আদালত। মামলা চলাকালীন একজনের মৃত্যু হয়। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

 



সাতদিনের সেরা