kalerkantho

বুধবার । ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৩ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ভারতের উন্নয়নে মোদির পাঁচ ‘সংকল্প’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভারতের উন্নয়নে মোদির পাঁচ ‘সংকল্প’

স্বাধীনতা দিবসে নয়াদিল্লির লালকেল্লায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার পর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি অনুষ্ঠানে আগত বিভিন্ন রাজ্যের প্রতিনিধিদের শুভেচ্ছা জানান। ছবি : এএফপি

উৎসবের আমেজে পালিত হয়েছে ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি। মোদি সরকারের ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসব’ নামের এ আয়োজনে কড়া নিরাপত্তায় মোড়া ছিল রাজধানী নয়াদিল্লিসহ দেশের গুরুত্বপূর্ণ এলাকা। দিল্লির লালকেল্লায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করার পরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন।

দীর্ঘ ৮৩ মিনিটের ভাষণে মোদি বলেন, ২৫ বছরের মধ্যে ভারত উন্নত দেশ হবে।

বিজ্ঞাপন

দেশের এগিয়ে যাওয়ার জন্য আগামীর ‘পাঁচ সংকল্প’ও তুলে ধরেন তিনি। এ ছাড়া দুর্নীতির বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান, আত্মনির্ভর ভারত নির্মাণ, নারীর মর্যাদা প্রতিষ্ঠা এবং পরিবারতন্ত্র  রোখার ওপর জোর দেন মোদি।

জাতির উদ্দেশে নরেন্দ্র মোদি বলেন, ‘আগামী দিনের পাঁচ বড় সংকল্প নিয়ে এগোতে হবে আমাদের। প্রথম সংকল্প হলো ভারতের বিকাশ, দ্বিতীয় সংকল্প দাসত্ব থেকে মুক্তি, তৃতীয় সংকল্প উত্তরাধিকার নিয়ে গর্ব, চতুর্থ সংকল্প ঐক্যবদ্ধ থাকা, পঞ্চম সংকল্প নাগরিক কর্তব্যে অবিচল থাকা। ’

এবারের স্বাধীনতা দিবসেই ভারতে প্রথমবার নিজ দেশে তৈরি ‘হাউইত্জার’ কামানে তোপধ্বনি (গান স্যালুট) দেওয়া হয়। সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে ব্যবহার করে এই অস্ত্র তৈরি করেছে ভারতের প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা (ডিআরডিও)। এত দিন যুক্তরাজ্যে তৈরি কামানের গোলা ছুড়ে আনুষ্ঠানিক অভিবাদন দেওয়ার প্রথা ছিল। এ প্রসঙ্গে মোদি বলেন, ‘যে আওয়াজ আমরা সব সময় শুনতে চাইতাম, ৭৫ বছর পর তা শুনতে পেলাম। ৭৫ বছর পর লালকেল্লায় আমাদের তেরঙ্গা পতাকা আনুষ্ঠানিক অভিবাদন পেল ভারতের তৈরি কামানের মধ্য দিয়ে। ’ মোদি আশা প্রকাশ করে বলেন, এই কামানের গর্জন শুনে ভারতীয়রা অনুপ্রাণিত বোধ করবেন।

সশস্ত্র বাহিনী আত্মনির্ভর ভারতের স্লোগানকে বাস্তবে পরিণত করায় তাদের অভিনন্দন জানান মোদি। এ ছাড়া ৩০০ প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম আর বিদেশ থেকে আমদানি না করার সিদ্ধান্তকেও সাধুবাদ জানান তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘শিশুরাও বিদেশে তৈরি খেলনা বাতিল করছে। ’

ভাষণে দুর্নীতি বরদাস্ত করা হবে না জানিয়ে মোদি বলেন, ‘দেশে গরিবদের থাকার ঘর নেই, আর একশ্রেণির মানুষের চুরি করা টাকা রাখার জায়গা পায় না। ’

এমন সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী এ মন্তব্য করেছেন যখন দেশজুড়ে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা বিভিন্ন রাজ্যে প্রভাবশালী নেতা, মন্ত্রী, বিধায়ক ও আমলাদের বাড়িতে তল্লাশি অভিযান চালাচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে স্বাধীনতা দিবসের বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রীর দুর্নীতিসংক্রান্ত মন্তব্যকে ‘তাৎপর্যপূর্ণ’ বলেছে ভারতীয় গণমাধ্যম।   

মমতার স্বপ্নের ভারত

এদিকে স্বাধীনতা দিবসে নিজের ‘স্বপ্নের ভারত’ কেমন হবে তা এক টুইটে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় রাজনীতি নিয়ে উচ্চাভিলাষী পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  

টুইটে মমতা লেখেন, ‘ভারতের জন্য আমার স্বপ্ন আছে! মানুষের জন্য আমি এমন একটি দেশ গড়তে চাই, যেখানে কেউ ক্ষুধার্ত থাকবে না, কোনো নারী নিরাপত্তাহীন বোধ করবেন না। যেখানে প্রতিটি শিশু শিক্ষার আলো দেখবে। সে দেশে সবাইকে সমানভাবে দেখা হবে। কোনো দমনমূলক শক্তি মানুষের মধ্যে বিভেদ করবে না, সম্প্রীতির দিন আসবে। ’ সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা ও এনডিটিভি।

 



সাতদিনের সেরা