kalerkantho

রবিবার । ২ অক্টোবর ২০২২ । ১৭ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

এবার থাইল্যান্ডে যেতে চান গোতাবায়া

শ্রীলঙ্কায় বিদ্যুতের দাম বাড়ল ২৬৪ শতাংশ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১১ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শ্রীলঙ্কায় বিদ্যুতের দাম বাড়ল ২৬৪ শতাংশ

শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোতে প্রেসিডেন্ট ভবনের কাছে অবস্থান ধর্মঘট করা বিক্ষোভকারীরা সরে যাচ্ছে। তাদের নেতাদের বিরুদ্ধে ধরপাকড় শুরু হওয়ার পর সরকারবিরোধী অন্যতম এ বিক্ষোভের সমাপ্তি টেনে নিজেদের গুটিয়ে নিচ্ছে আন্দোলনকারীরা। গতকাল তোলা। ছবি : এএফপি

সংকটে জেরবার শ্রীলঙ্কায় বিদ্যুতের দাম ২৬৪ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। গতকাল বুধবার থেকে নতুন এ মূল্য কার্যকর হওয়ার কথা।

শ্রীলঙ্কার পাবলিক ইউটিলিটি কমিশনের (পিইউসিএসএল) চেয়ারম্যান জনকা রথনায়েক বলেন, ‘গত ৯ বছরে আমরা বিদ্যুতের দাম স্থিতিশীল রাখতে পেরেছি, যা এখন আর সম্ভব হচ্ছে না। তাই বাধ্য হয়েই বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান সিলন ইলেকট্রিসিটি বোর্ড (সিইবি) বিদ্যুতের দাম ৮০০ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব করেছিল। কিন্তু নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ তা ২৬৪ শতাংশে সীমাবদ্ধ রেখেছে। ৬১ কোটি ৬০ লাখ মার্কিন ডলারের ক্ষতি পুষিয়ে নিতে বিদ্যুতের দাম এতটা বাড়ানো হলো বলে জানায় সংস্থাটি।

এ সিদ্ধান্তের ফলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়বে ৯০ কিলোওয়াটের কম বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীরা। তাদের এখন থেকে ৮০ শতাংশ বেশি দামে বিদ্যুৎ কিনতে হবে।  

এবার থাইল্যান্ডে যেতে চান গোতাবায়া

সিঙ্গাপুরের ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ায় শ্রীলঙ্কার ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে থাইল্যান্ডে অস্থায়ীভাবে আশ্রয় চেয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার তাঁর দেশটির উদ্দেশে যাত্রা করার কথা।

রাজাপক্ষের একান্ত সহকারী বলেন, ‘গত বৃহস্পতিবার রাজাপক্ষের সিঙ্গাপুরের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়। এরপর তিনি মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করেন। কিন্তু গতকাল বুধবার সকাল পর্যন্ত এ বিষয়ে তিনি কোনো উত্তর পাননি। ’ তিনি আরো বলেন, ‘থাইল্যান্ডে রাজাপক্ষের অল্প কিছুদিন অবস্থানের পরিকল্পনা রয়েছে। এরপর পুনরায় সিঙ্গাপুরে ফিরবেন। ’

থাইল্যান্ডের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, কলম্বো থেকে এসংক্রান্ত একটি আবেদন তারা পেয়েছে। তবে রাজাপক্ষে তাদের কাছে কোনো রাজনৈতিক আশ্রয় চাইবেন না বলেই প্রত্যাশা তাদের।

রাজাপক্ষের থাইল্যান্ডে আশ্রয়ের বিষয়ে সিঙ্গাপুরে অবস্থিত শ্রীলঙ্কার দূতাবাস থেকে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। রাজাপক্ষের বিশ্বস্ত এক সহকারী জানান, রাজাপক্ষে শ্রীলঙ্কায় ফিরতে আগ্রহী। কিন্তু বর্তমান প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে তাঁকে এখনই প্রত্যাবর্তন না করার ব্যাপারে পরামর্শ দিয়েছেন। খাদ্য, জ্বালানি তেল, প্রয়োজনীয় ওষুধসহ তীব্র অর্থনৈতিক সংকটের পরিপ্রেক্ষিতে জনগণের অব্যাহত বিক্ষোভের মুখে রাজাপক্ষে গত ১৪ জুলাই দেশ থেকে পালিয়ে মালদ্বীপ হয়ে সিঙ্গাপুরে আশ্রয় নেন। সেখানে পৌঁছে তিনি প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দেন।

সূত্র : এএফপি, এনডিটিভি



সাতদিনের সেরা