kalerkantho

সোমবার । ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১১ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২৯ সফর ১৪৪৪

নবী (সা.)-কে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য

আরববিশ্বের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে উদ্বেগ-স্বস্তি দুটিই আছে দিল্লির

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৭ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপিদলীয় জ্যেষ্ঠ দুই কর্মকর্তার বিতর্কিত মন্তব্যের প্রতিক্রিয়া দেশ ছাড়িয়ে বিদেশ পর্যন্ত গড়িয়েছে। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সৃষ্ট সেই প্রতিক্রিয়া সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছে ভারত সরকার।

এক বিবৃতিতে ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থা (ওআইসি) বলেছে, ‘ভারতে ইসলামের প্রতি ঘৃণা ও অবমাননার এবং মুসলিমদের পদ্ধতিগত হয়রানির ক্রমবর্ধমান তীব্রতার প্রেক্ষাপটে এই অপমানগুলো করা হয়েছে। ’

আরব দেশগুলোর সংবাদমাধ্যমেও গুরুত্বের সঙ্গে জায়গা করে নিয়েছে ভারতে মহানবী (সা.)-কে নিয়ে মন্তব্য করার খবর।

বিজ্ঞাপন

ওই সব দেশের মানুষ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ব্যাপক সমালোচনা করছে। ভারতীয় পণ্য বর্জনের আহ্বানও এসেছে।

পাকিস্তানের সশস্ত্র বাহিনী এক টুইটে ভারতীয় কর্মকর্তাদের ‘ধর্মীয় অবমাননাসূচক মন্তব্যের তীব্র নিন্দা’ জানিয়েছে।

আরব দেশগুলোর সঙ্গে ভারতের বিশাল অঙ্কের বাণিজ্য, ওই সব দেশে ভারতীয়দের কর্মসংস্থান এবং তাদের পাঠানো রেমিট্যান্স, ওই অঞ্চল থেকে জ্বালানি আমদানি—সব মিলিয়ে আরববিশ্বের সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষা করা ভারতের জন্য জরুরি। তবে প্রয়োজনটা কেবল একপক্ষীয় নয় বলে মন্তব্য করেন উইলসন সেন্টারের এশিয়া প্রগ্রামের ডেপুটি পরিচালক মাইকেল কুগেলম্যান। তাঁর মতে, ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষায় আরব দেশগুলোরও অর্থনৈতিক স্বার্থ আছে। নিজেদের অর্থনীতি রক্ষায় ভারতীয় কর্মীর প্রয়োজনীয়তা এবং দেশটিতে জ্বালানি রপ্তানি অব্যাহত রাখা উপসাগরীয় দেশগুলোর বিবেচনায় রয়েছে। ফলে ভারতের বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া দেখালেও এর একটা সীমারেখা থাকবে বলে কুগেলম্যান মনে করেন। সূত্র : বিবিসি

 

 



সাতদিনের সেরা