kalerkantho

মঙ্গলবার। ৯ আগস্ট ২০২২ । ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯ । ১০ মহররম ১৪৪৪

আবার রাজধানী কিয়েভে আঘাত

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ জুন, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আবার রাজধানী কিয়েভে আঘাত

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভের একাংশে গতকাল বিস্ফোরণের পর ধোঁয়া উড়তে দেখা যায়। ছবি : এএফপি

এক মাসের বেশি ব্যবধানে আবার রাশিয়ার হামলার শিকার হলো ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভ। এবার শহরের রেল কাঠামোতে আঘাত হেনেছে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র। রুশ সেনারা পূর্ব ইউক্রেনের সেভেরোদোনেত্স্ক শহরের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নিতে সাধ্যমতো চেষ্টা করলেও গত দুদিনে তারা কিছু পিছু হটেছে বলে জানা গেছে।

এদিকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, পশ্চিম থেকে ইউক্রেনকে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করা হলে মস্কোও নতুন লক্ষ্যে আঘাত হানবে।

বিজ্ঞাপন

২৮ এপ্রিলের পর এবারই প্রথম আবার কোনো আঘাত করা হলো ইউক্রেনের রাজধানীতে। ঘটনাটি সম্পর্কে নিশ্চিত করা হয়েছে ইউক্রেনের পক্ষ থেকেও। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের দপ্তরের উপদেষ্টা সেরহি লেশচেঙ্কো বলেন, ‘হামলায় ইউক্রেনের রেলওয়ে কাঠামোকে লক্ষ্যবস্তু করা হয়েছিল। ’

রাশিয়ার দাবি, তারা কিয়েভ শহরের বাইরে পূর্ব ইউরোপের দেশগুলোর সরবরাহ করা টি-৭২ ট্যাংক এবং অন্যান্য সাঁজোয়া যান ধ্বংস করেছে।

জানা গেছে, যুদ্ধের ১০১তম দিনে পূর্ব ইউক্রেনের শহর সেভেরোদোনেেস্কর নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে নিতে সর্বশক্তি নিয়োগ করছে রাশিয়া। ওই অঞ্চলের আঞ্চলিক গভর্নর সেরহি হাইদাই বলেন, ‘রাশিয়ার সামরিক বাহিনী তাদের সব শক্তি এ দিকে পাঠাচ্ছে। ’ শহরটিতে কিছুদিন ধরে তীব্র লড়াই হচ্ছে। প্রসঙ্গত, ২০১৪ সাল থেকেই লুহানস্কের কিছু অংশ রুশ সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীদের দখলে রয়েছে।

তবে সেভেরোদোনেেস্কর নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার বেলায় সুবিধা করে উঠতে পারছে না রুশ সেনারা। অন্তত তাই বলছেন লুহানস্কের গভর্নর হাইদাই। তিনি বলেন, ‘শহরের ৭০ শতাংশের নিয়ন্ত্রণ ছিল রাশিয়ার হাতে, কিন্তু গত দুই দিনে তারা পিছু হটেছে। ’

দনবাসের অন্যান্য অঞ্চলেও আক্রমণ চলছে। দোনেত্স্ক অঞ্চলে ইউক্রেন ও রাশিয়ার বাহিনীর লড়াইয়ের জেরে কাঠের তৈরি এক সুপরিচিত গির্জায় আগুন ধরে যায়। ইউক্রেনীয় অর্থোডক্স গির্জা থেকে জানানো হয়, আগুন ওই উপাসনালয়ের মূল কক্ষকে সম্পূর্ণ ছেয়ে ফেলেছিল। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কি এজন্য রাশিয়াকে দায়ী করেছেন।

দনবাসে মূল মনোযোগ থাকলেও ইউক্রেনের অন্যান্য স্থানে গোলাবর্ষণ থামায়নি রাশিয়া। এর অন্যতম উদাহরণ মাইকোলাইভ।

পুতিনের হুঁশিয়ারি

নতুন লক্ষ্যে আঘাত হানার ব্যাপারটি যে রাশিয়ার বিবেচনায় রয়েছে, সে আভাস মিলেছে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের কথায়ও। তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, পশ্চিম থেকে ইউক্রেনকে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করা হলে মস্কো নতুন লক্ষ্যে আঘাত হানবে। এ ছাড়া কিয়েভে নতুন অস্ত্র সরবরাহ ‘সংঘাতকে দীর্ঘায়িত করছে’ বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

রাশিয়ার গণমাধ্যম পুতিনের উদ্ধৃতি দিয়ে এ খবর জানায়। পুতিন আরো বলেন, ‘যদি কিয়েভে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র সরবরাহ করা হয়, তাহলে আমরা যথাযথ উপসংহার টানব এবং আমাদের অস্ত্র ব্যবহার করব—এমন লক্ষ্যে আঘাত হানতে, যেখানে আমরা এর আগে হামলা চালাইনি। ’ তবে পুতিন কোন লক্ষ্যের কথা বলেছেন, সে ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু বলা হয়নি।

সূত্র : এএফপি, বিবিসি

 



সাতদিনের সেরা