kalerkantho

শনিবার । ২৫ জুন ২০২২ । ১১ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৪ জিলকদ ১৪৪৩

অভিযান চালাতে দেরি করে পুলিশ ভুল করেছে

টেক্সাসের স্কুলে গুলি নিয়ে প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



অভিযান চালাতে দেরি করে পুলিশ ভুল করেছে

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে স্কুলে বন্দুক হামলায় নিহতদের স্মরণে বৃহস্পতিবার ফুল দিতে এসে কান্নায় ভেঙে পড়ে এই শিশু। ছবি : এএফপি

যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা বলেছেন,  উভালডে শহরের রব প্রাথমিক স্কুলে অভিযান চালাতে দেরি করে পুলিশ ‘ভুল সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গতকাল শুক্রবার এক উত্তপ্ত সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

অঙ্গরাজ্যের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা স্টিভেন ম্যাকক্র বলেন, ‘যদি এতে কোন উপকার হয়, আমি দুঃখ প্রকাশ করতে চাই। ’

স্টিভেন ম্যাকক্র নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশের ইউনিট ঘটনাস্থলে আসার পর থেকে বন্দুকধারীর অবস্থান নেওয়া কক্ষে তাদের  প্রবেশের মধ্যে ৪০ মিনিটের ব্যবধান ছিল।

বিজ্ঞাপন

ওই সময় কক্ষটিতে থাকা শিক্ষার্থীরা পুলিশকে বারবার ভেতরে ঢোকার আবেদন করে যাচ্ছিল।

পুলিশের সাড়া দিতে বিলম্বের বিষয়টি ঘাতক সালভাদর রামোস এতক্ষণ কিভাবে স্কুলের ভেতরে তত্পরতা চালাতে পারল তা নিয়ে আরো প্রশ্ন তুলেছে। বিশেষ করে স্থানীয় পুলিশ কিছু না করতে পারায়।

প্রসঙ্গত, সীমান্তরক্ষী এজেন্টদের একটি বিশেষ দল অভিযান চালিয়ে রামোসকে হত্যা করে।

এর আগেই পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দেরি করার অভিযোগ ওঠে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর পদক্ষেপ নিয়ে অভিভাবকদের সমালোচনার মুখে ঘটনাপ্রবাহের গুরুত্বপূর্ণ তথ্যেও পরিবর্তন আসে।

গত বৃহস্পতিবার পুলিশ জানায়, টেক্সাসের উভালডে শহরের রব এলিমেন্টারি স্কুলে প্রবেশের আগে বন্দুকধারী সালভাদর রামোস ১২ মিনিট ধরে বাইরে ঘোরাঘুরি করেন। এরপর কোনো বাধা ছাড়াই স্কুলে প্রবেশ করেন। এর আগে পুলিশ বলেছিল, হামলাকারী স্কুলে প্রবেশের সময় সেখানে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিশের মুখোমুখি হয়েছিল।

পুলিশের ভাষ্য, স্কুলে প্রবেশের ৯০ মিনিট পর আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর গুলিতে নিহত হন সালভাদর রামোস (১৮)। এর আগে গুলি চালিয়ে ১৯ শিশু শিক্ষার্থী ও দুই শিক্ষককে হত্যা করেন তিনি।

স্কুলে প্রবেশ করতে পুলিশ দেরি করেছিল বলে অভিযোগ করেছেন বেশ কয়েকজন অভিভাবক। এক ভিডিওতে দেখা যায়, বাইরে উপস্থিত কয়েকজন পুলিশকে তাগিদ দিচ্ছেন স্কুলের ভেতর ঢুকে বন্দুকধারীকে মোকাবেলা করতে। এ সময় কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তুলে এক অভিভাবকের হাতে হাতকড়া পরায় পুলিশ। ভিডিওটি প্রকাশের পর জনমনে ক্ষোভ বেড়েছে।

 

পরে ঘটনাপ্রবাহসংক্রান্ত নতুন তথ্য জানান টেক্সাস ডিপার্টমেন্ট অব পাবলিক সেফটির (ডিপিএস) রেঞ্জার ভিক্টর এসক্যালন। তবে এর পরও ঘটনাপ্রবাহের বিবরণ নিয়ে প্রশ্ন রয়ে যায়।

ভাষা খুঁজে পাচ্ছি না : হামলাকারীর মা

বন্দুকধারী তরুণের মা প্রথমবারের মতো মুখ খুললেন। স্তম্ভিত মা আড্রিয়ানা রেইস বলেছেন, তাঁর মুখে বলার কোনো ভাষা নেই। এবিসি নিউজকে রেইস বলেন, রেগে গেলে তাঁর ছেলে কখনো কখনো আক্রমণাত্মক হয়ে উঠলেও সে স্বভাবে ‘দানব না’। ছেলে অস্ত্র কিনেছিল সে কথাও জানেন না বলে উল্লেখ করেন রেইস। সূত্র : বিবিসি, এএফপি

 

 



সাতদিনের সেরা