kalerkantho

রবিবার । ৩ জুলাই ২০২২ । ১৯ আষাঢ় ১৪২৯ । ৩ জিলহজ ১৪৪৩

পাকিস্তানের রাজনীতি

নির্বাচনের তারিখ চেয়ে ইমরানের আলটিমেটাম

ছয় দিনের মধ্যে নির্বাচনের ঘোষণা দেওয়ার দাবি, তা না হলে ছয় দিন পর ফের সমাবেশ করার হুমকি

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৭ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



নির্বাচনের তারিখ চেয়ে ইমরানের আলটিমেটাম

পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে গতকাল বিক্ষোভ সমাবেশে দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ছবি : এএফপি

নতুন করে নির্বাচন না দিলে আরো গণপ্রতিবাদের সম্মুখীন হতে হবে বলে সতর্ক করেছেন পাকিস্তানের ক্ষমতাচ্যুত প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। গতকাল সকালে এই হুঁশিয়ারি জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত জনতার উদ্দেশে ইমরান বলেন, ‘আমি এই আমদানি করা সরকারের প্রতি বার্তা দিতে চাই যে আগামী ছয় দিনের মধ্যে নির্বাচনের ঘোষণা দিতে হবে, আইনসভার বিলুপ্তি ঘটাতে হবে এবং জুনে নির্বাচন করতে হবে। ’ সেটা করা না হলে ছয় দিন পর ফের সমাবেশ করা হবে বলেও জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন

এ সময় নিজ সমর্থকদের চতুর্দিকে ছড়িয়ে পড়ার আহ্বান জানান ইমরান খান।

নতুন সরকারকে চাপের মুখে রাখতে দেশজুড়ে সমাবেশ করছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান। এর অংশ হিসেবে গত বুধবার রাজধানী ইসলামাবাদ অভিমুখে ‘আজাদি মার্চ’ শীর্ষক লং মার্চের ডাক দেন তিনি। কিন্তু সমাবেশটি পেশোয়ার থেকে ইসলামাবাদ যাওয়ার পথে পুলিশের সঙ্গে তাঁর দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) কর্মীদের সংঘর্ষ হয়।

সমাবেশের গাড়িবহরের রাজধানীতে প্রবেশ রুখতে সব প্রবেশ ও বহির্গমন পথ আটকে দেয় পাকিস্তানের ক্ষমতাসীন সরকার। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের এক নির্দেশের কারণে বাধ্য হয়ে বিক্ষোভকারীদের প্রবেশের অনুমতি দিতে হয়। তবে সমাবেশে পুলিশের কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ এবং লাঠিপেটা করার ঘটনা ঘটে। এ ছাড়াও গত সোমবার রাত থেকে পিটিআই সমর্থকদের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে এক হাজার সাত শর বেশি ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়। রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক অস্থিরতার এই সময়ে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) পাকিস্তানকে যেদিন ৯০ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ ঘোষণা দেওয়ার কথা, সে দিনই এ ধরনের ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, ওই ঋণের জন্য একটি রূপরেখায় পৌঁছেছে পাকিস্তান ও আইএমএফ। সেই রূপরেখা অনুসারে, তেলের ওপর ভর্তুকি দেওয়া থেকে পাকিস্তান সরে এলেই তহবিল হস্তান্তর করবে আইএমএফ। এ প্রসঙ্গে এক সূত্র জানায়, ‘আমরা যখন তেলের দাম বাড়াব, তখনই চুক্তি সম্পন্ন হবে। আমরা একটি চুক্তির রূপরেখা তৈরি করেছি। ’ তবে পাকিস্তানের আইএমএফ প্রতিনিধিরা এ নিয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করেননি। ২০১৯ সালে তিন বছরের ৬০০ কোটি ডলারের আইএমএফ চুক্তি থেকে সরে এসেছিল পাকিস্তান।

তেলের ওপর থেকে ভর্তুকি সরিয়ে নিলে নতুন জোট সরকার রাজনৈতিক প্রতিক্রিয়ার মুখে পড়তে পারে বলেও ধারণা করা হচ্ছে। আগামী ১৬ মাসের মধ্যেই নির্বাচন হতে পারে দেশটিতে। সূত্র : এএফপি, টাইমস অব ইন্ডিয়া



সাতদিনের সেরা