kalerkantho

মঙ্গলবার । ৫ জুলাই ২০২২ । ২১ আষাঢ় ১৪২৯ । ৫ জিলহজ ১৪৪৩

টেক্সাসের স্কুলে গুলির ঘটনা

পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দেরি করার অভিযোগ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৭ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের প্রাইমারি স্কুলে গুলির ঘটনার সময় ব্যবস্থা নিতে দেরি করার অভিযোগ উঠেছে পুলিশের বিরুদ্ধে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেছে, উপস্থিত অনেকে ঘটনার শুরুতেই পুলিশকে স্কুলে ঢুকতে বারবার অনুরোধ করেছিল।

টেক্সাসের কর্মকর্তারা বলেছেন, বন্দুকধারী সালভাদর রামোস নিজেই গুলিতে নিহত হওয়ার আগে এক ঘণ্টা পর্যন্ত উভালডে স্কুলের ভেতরে তৎপর ছিলেন।

ছোট সীমান্ত শহর উভালডের রব এলিমেন্টারি স্কুলে রামোসের গুলিতে উনিশটি শিশু এবং দুজন প্রাপ্তবয়স্ক মারা যায়।

বিজ্ঞাপন

এ ছাড়া ১৭ জন আহত হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী হুয়ান কারাঞ্জা বার্তা সংস্থা এপিকে বলেছেন, স্কুলের বাইরে থাকা কয়েকজন নারী চিৎকার করে পুলিশ সদস্যদের বলছিলেন, ‘ভেতরে ঢুকে পড়ুন’।

কিন্তু নিজের বাড়ির বাইরে থেকে স্কুলের ঘটনাটি দেখা ২৪ বছর বয়সী প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, পুলিশ তখনো স্কুলের ভেতরে প্রবেশ করেনি। হাভিয়ের কাজারেস নামের ওই ব্যক্তি এপিকে বলেছেন, তিনি অন্য কয়েকজন প্রত্যক্ষদর্শীকে একসঙ্গে দৌড়ে ভেতরে ঢোকার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কারণ পুলিশ ‘কিছুই করছিল না’। গুলির ঘটনায় কাজারেসের মেয়ের মৃত্যু হয়েছে। কর্তৃপক্ষ বলেছে, বন্দুকধারী একটি শ্রেণিকক্ষে ঢুকে দরজা আটকে দিয়েছিলেন। এতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর সদস্যরা তাঁর কাছে যেতে বেগ পান। টেক্সাস জননিরাপত্তা দপ্তরের পরিচালক স্টিভেন ম্যাকক্র বুধবার রাতে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, বন্দুকধারী ৪০ মিনিট থেকে এক ঘণ্টা ঘটনাস্থলে ছিলেন। এরপর আইন প্রয়োগকারী বাহিনীর সদস্যরা তাঁকে ‘নিয়ন্ত্রণে আনতে’ সক্ষম হন।

এদিকে মার্কিন সীমান্ত টহল বাহিনীর প্রধান রাউল অরটিজ সিএনএনকে বলেছেন, বাহিনীর বেশ কয়েকজন সদস্যকে গুলি করার ঘটনা মোকাবেলায় পাঠানো হয় এবং তাঁরা ‘দ্বিধাদ্বন্দ্ব করেননি। ’ তিনি বলেন, ‘বাহিনীর সদস্যরা শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করেন এবং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পরিস্থিতি মোকাবেলার ব্যবস্থা নেন। ’ সূত্র : বিবিসি



সাতদিনের সেরা