kalerkantho

রবিবার । ৩ জুলাই ২০২২ । ১৯ আষাঢ় ১৪২৯ । ৩ জিলহজ ১৪৪৩

কোয়াড জোটের বৈঠক

ইউক্রেন ইস্যুতে বিভক্তি চীনকে রোখাই লক্ষ্য

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইউক্রেন ইস্যুতে বিভক্তি চীনকে রোখাই লক্ষ্য

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউন সুক-ইউলের সঙ্গে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন (ডানে)। ছবি : এএফপি

মার্কিন শীর্ষ নেতা হিসেবে নিজের প্রথম এশিয়া সফরে গতকাল শুক্রবার দক্ষিণ কোরিয়ায় পা রেখেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এ সময় দক্ষিণ কোরিয়ার নতুন প্রেসিডেন্ট উন নুন-ইওলের পক্ষ থেকে উষ্ণ অভিনন্দন জানানো হয় তাঁকে।

সফরের প্রথম ভাগেই দেশটির পিয়ংটায়েকে স্যামসাংয়ের একটি সেমিকন্ডাক্টর কারখানা ঘুরে দেখেন বাইডেন। এ সময় সেমিকন্ডাক্টরকে অভিহিত করেন ‘উদ্ভাবনের বিস্ময়’ ও বিশ্ব অর্থনীতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ বলে।

বিজ্ঞাপন

চীনের ক্রমবর্ধমান বাণিজ্যিক ও সামরিক সক্ষমতার মুখে এশিয়ায় ওয়াশিংটনের আধিপত্য বিস্তারি অবস্থান অনেকটাই ফিকে হয়ে এসেছে বলে মনে করেন পর্যবেক্ষকরা। তাঁদের মতে, নিজ সফরের মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সে অবস্থানকে পুনরুদ্ধার করতে চাইছেন বাইডেন।  

চীন প্রশ্নে কোয়াড বৈঠক

চীনের বিরুদ্ধে পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তি খুঁজে পেতে আগামী মঙ্গলবার টোকিওতে বৈঠকে বসার কথা রয়েছে জাপান, ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের নেতাদের। দেশ চারটি মিলে আগেই গড়ে তুলেছে কথিত কোয়াড জোট। ইউক্রেন প্রশ্নে নিজেদের মধ্যে বিভক্তি সত্ত্বেও চারটি রাষ্ট্রই চীনের ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক, সামরিক ও প্রযুক্তিগত প্রভাবের বিপরীতে ভূমিকা রাখতে আগ্রহী।

ইউক্রেন ইস্যুতে কোয়াড সদস্যদের মধ্যে শুধু ভারতই এখন পর্যন্ত প্রকাশ্যে রাশিয়ার কোনো সমালোচনা করেনি বা দেশটির প্রতি কোনো নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেনি। উল্টো রাশিয়ার কাছ থেকে তেল আমদানি বৃদ্ধি করেছে তারা, কিনছে অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্রও।

অনেক পর্যবেক্ষক বলছেন, তাইওয়ানকে নিজেদের মূল ভূখণ্ডের সঙ্গে জুড়ে নেওয়ার নানা বিকল্প খতিয়ে দেখার পাশাপাশি ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে সৃষ্ট আন্তর্জাতিক প্রতিক্রিয়ার দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখছে বেইজিং।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর এবারই প্রথম জাপানে যাচ্ছেন জো বাইডেন।

গণমাধ্যমের প্রতিবেদন বলছে, বাইডেন ও জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা যৌথ এক বিবৃতি দেবেন। এতে চীনের কর্মকাণ্ডের কারণে আঞ্চলিক যেকোনো অস্থিতিশীলতার জবাব দিতে তারা ‘প্রস্তুত’ বলে সতর্কবার্তা জানানো হবে। অন্যদিকে কোয়াডের পক্ষ থেকে বিবৃতি নরম স্বরের হবে বলে জানা গেছে। অতীতের ‘মুক্ত ও উন্মুক্ত ইন্দো-প্রশান্ত’ আহ্বানেরই প্রতিধ্বনি থাকবে সেটিতে। সূত্র : এএফপি



সাতদিনের সেরা