kalerkantho

সোমবার । ২৭ জুন ২০২২ । ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৬ জিলকদ ১৪৪৩

রাজীব গান্ধী হত্যাকাণ্ড

এক আসামিকে মুক্তির নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এক আসামিকে মুক্তির নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

রাজীব গান্ধী

৩১ বছর কারাবন্দি থাকার পর ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধী হত্যা মামলার আসামি এ জি পেরারিভালানকে সুপ্রিম কোর্ট গতকাল বুধবার মুক্তির নির্দেশ দিয়েছেন।

বিচারপতি এল নাগেশ্বরা রাওয়ের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ বিশেষ ক্ষমতাবলে পেরারিভালানকে মুক্তি দেন। পেরারিভালান গত মার্চ মাসে জামিন পেয়েছিলেন। তাঁকে প্রথমে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হলেও পরে সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড করা হয়।

বিজ্ঞাপন

রাজীব হত্যাকারীকে বোমা তৈরিতে ব্যাটারি দিয়ে সহায়তা করেছিলেন পেরারিভালান। তখন তাঁর বয়স ছিল ১৯ বছর।  

রাজীব হত্যার সঙ্গে জড়িত যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আরো ছয়জন কারাগারে আছেন।

২০১৫ সালে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে মুক্তির আবেদন জানিয়েছিলেন পেরারিভালান। তখন থেকে বিষয়টি আইনি জটিলতায় পড়ে। তামিলনাড়ুর গভর্নর বিষয়টি রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠিয়ে দেন। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট মত দেন যে এটি সংবিধানসম্মত নয়। এরপর সর্বোচ্চ আদালত তাঁর বিশেষ অধিকার প্রয়োগ করে তাঁকে মুক্তির আদেশ দেন।

১৯৯১ সালের ২১ মে রাজীব গান্ধীকে তামিলনাড়ুতে আত্মঘাতী বোমার মাধ্যমে হত্যা করেছিল শ্রীলঙ্কার সশস্ত্র বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন লিবারেশন টাইগারস অব তামিল ইলম (এলটিটিই)। দক্ষিণ ভারতে একটি নির্বাচনী সভায় অংশ নিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই আত্মঘাতী বিস্ফোরণে তাঁকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়।

এ হত্যা মামলার আসামি পেরারিভালান বহু বছর ধরে নির্জন কারাগারে ছিলেন। সেখানে খুব ভালো আচরণের রেকর্ড রয়েছে তাঁর। দীর্ঘ কারাবাসের সময় অর্জন করেছেন বেশ কিছু শিক্ষাগত যোগ্যতাও। একটি বইও রচনা করেছেন এ জি পেরারিভালান। তাঁর মুক্তির আবেদন নিয়ে নানামুখী বিতণ্ডার মধ্যে এ ব্যাপারে সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্ত এলো। সূত্র : এএফপি



সাতদিনের সেরা