kalerkantho

সোমবার । ২৭ জুন ২০২২ । ১৩ আষাঢ় ১৪২৯ । ২৬ জিলকদ ১৪৪৩

রাশিয়ার দাবি

হাজার ইউক্রেনীয় সেনার আত্মসমর্পণ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৯ মে, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



হাজার ইউক্রেনীয় সেনার আত্মসমর্পণ

রাশিয়ার দাবি, মারিওপোলে আত্মসমর্পণ করছে ইউক্রেনীয় সেনারা। অন্যদিকে ইউক্রেন রুশ সেনাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের বিচার শুরু করেছে। এসবের সঙ্গে নর্থ আটলান্টি ট্রিটি অর্গানাইজেশনে (ন্যাটো) জায়গা পেতে আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া শুরু করেছে ফিনল্যান্ড ও সুইডেন। এর জন্য আবেদন করার পর তা দ্রুত অনুমোদনের আহ্বানও জানিয়েছে ফিনল্যান্ড।

বিজ্ঞাপন

ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় বন্দরগরী মারিওপোলের আজভস্তাল কারখানা কমপ্লেক্সে ৮২ দিন প্রতিরোধ ধরে রেখেছিল ইউক্রেনীয় সেনারা। মারিওপোলে এটাই ছিল সর্বশেষ জায়গা, যেখানে ইউক্রেনীয় সেনারা প্রতিরোধ ধরে রাখতে পেরেছিল। বাকি এলাকা আগেই রুশ সেনাদের দখলে চলে গিয়েছিল।

আজভস্তালের সেই প্রতিরোধ অবশেষে ভেঙে পড়ে এবং গত সোমবার থেকে তারা বেরিয়ে আসতে শুরু করে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় গতকাল বুধবার দাবি করে, গত সোমবার থেকে ৯৫৯ ইউক্রেনীয় সেনা আত্মসমর্পণ করেছে। নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে গতকাল বলা হয়, ‘গত ২৪ ঘণ্টায় আহত ২৯ জনসহ ৬৯৪ জঙ্গি আত্মসমর্পণ করেছে। ১৬ মে থেকে মোট ৯৫৯ জন আত্মসমর্পণ করেছে, যাদের মধ্যে আহত রয়েছে ৮০ জন। ’ প্রেস ব্রিফিংয়ে আরো জানানো হয়, যাদের চিকিৎসা দরকার তাদের রুশ নিয়ন্ত্রিত নোভোয়াজভস্ক এলাকার হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে।

ইউক্রেন কর্তৃপক্ষ বন্দি সেনা বিনিময়ের আশায় থাকলেও এ ব্যাপারে রাশিয়া এখনো কিছু জানায়নি।

এর মধ্যে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আজভস্তাল কারাখানা কমপ্লেক্সে আটকে পড়া ব্যক্তিদের উদ্ধারে ‘প্রয়োজনীয় সব’ পদক্ষেপ নেওয়া হবে। তবে সামরিক পদক্ষেপ গ্রহণ করার কোনো পথ যে খোলা নেই, সেটা স্বীকার করেছে কর্তৃপক্ষ।

এ ব্যাপারে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কি বলেন, ‘উদ্ধার অভিযান চলছে। আমাদের সেনাবাহিনী ও গোয়েন্দারা বিষয়টি দেখভাল করছে। সবচেয়ে প্রভাবশালী আন্তর্জাতিক মধ্যস্থতাকারীরা এর সঙ্গে জড়িত। ’

ইউক্রেনে আটক রুশ সেনাদের বিচার শুরু : এদিকে গতকাল প্রথমবারের মতো ইউক্রেনে যুদ্ধাপরাধের দায়ে এক রুশ সেনাকে কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হয়েছে এবং তিনি নিজের দোষ স্বীকার করেছেন।

২১ বছর বয়সী রুশ সার্জেন্ট ভাদিম শিশিমারিনের বিরুদ্ধে ইউক্রেনের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে ৬২ বছর বয়সী এ বেসামরিক ব্যক্তিকে হত্যা ও যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি বাইসাইকেলে চড়া অবস্থায় ওই ব্যক্তিতে গুলি করে মেরে ফেলা হয়। প্রসিকিউটরের ভাষ্য মতে, ওই ব্যক্তিকে হত্যা করার জন্য শিশিমারিনকে নির্দেশ দেওয়া এবং এরপর তিনি কালাশনিকভ রাইফেলের গুলিতে ওই বৃদ্ধকে হত্যা করেন। শিশিমারিন আরো জানিয়েছেন, মাকে অর্থনৈতিকভাবে সহযোগিতা করার জন্যই তিনি ইউক্রেনে যুদ্ধ করতে এসেছেন।

শিশিমারিনের পর আরো কয়েকজনকে বিচারের মুখোমুখি করার কথা। রুশ সেনাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের বিচার শুরু হওয়া সম্পর্কে ক্রেমলিন কিছুই জানে না বলে মন্তব্য করেছে।

শিশিমারিনের আইনজীবী জানিয়েছেন, ইউক্রেনে এর আগে যুদ্ধাপরাধসংক্রান্ত কোনো বিচার হয়নি। এ ধরনের বিচারকাজ চ্যালেঞ্জিং হবে বলে তাঁর অভিমত।

ফিনল্যান্ড ও সুইডেনের ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার আবেদন : ইউক্রেনে রুশ হামলার পরিপ্রেক্ষিতে নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন ফিনল্যান্ড ও সুইডেন অবশেষে ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার জন্য আবেদন করেছে। এত দিন সামরিকভাবে নিরপেক্ষ অবস্থানে থাকা দেশ দুটি গতকাল যৌথভাবে ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার আবেদন করে। এ আবেদনে যত শিগগির সম্ভব ন্যাটো সদস্যরা অনুমোদন দেবে, এমন আশা প্রকাশ করেছেন ফিনল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী সানা মারিন। ন্যাটো মহাসচিব জেন্স স্টোলটেনবার্গ গতকাল বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে জোটের সদর দপ্তরে আনুষ্ঠানিকভাবে ওই আবেদনপত্র গ্রহণ করেন। নর্ডিক দেশ দুটির ন্যাটোতে যোগদানের ব্যাপারে আগে থেকেই হুঁশিয়ারি দিয়ে আসছে রাশিয়া। এটাকে সরাসরি ‘সমস্যা’ আখ্যা দিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এ ছাড়া জোট সদস্য তুরস্ক বিভিন্ন কৌশলগত কারণে এর বিরোধিতা করছে। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ান গতকালও নিজ দেশের অবস্থান তুলে ধরে বলেন, ন্যাটোর সদস্যরা যেন আংকারার উদ্বেগের প্রতি ‘শ্রদ্ধা’ দেখায়। সূত্র : এএফপি, বিবিসি



সাতদিনের সেরা