kalerkantho

শুক্রবার ।  ২৭ মে ২০২২ । ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৫ শাওয়াল ১৪৪

আগামী মাসে ইউক্রেনে রুশ হামলা হতে পারে

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টকে বাইডেনের সতর্কবার্তা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৯ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



আগামী মাসে ইউক্রেনে রুশ হামলা হতে পারে

ইউক্রেনের পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর লভিভের কাছে ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর পিসকিপিং অ্যান্ড সিকিউরিটির ফায়ারিং গ্রাউন্ডে চলছে মহড়া। এতে ইউক্রেনের এক সেনা পরবর্তী প্রজন্মের লাইট অ্যান্টি-ট্যাংক ওয়েপন (এনএলএডাব্লিউ) লক্ষ্যবস্তুর দিকে তাক করে আছেন। ছবি : এএফপি

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সতর্ক করে বলেছেন, রাশিয়া আগামী মাসে ইউক্রেন আক্রমণ করতে পারে—এমন একটি ‘আশঙ্কা’ রয়েছে।

বৃহস্পতিবার ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে টেলিফোনে আলাপে মার্কিন প্রেসিডেন্ট এ আশঙ্কা ব্যক্ত করেন। এদিকে ক্রেমলিন বলেছে, রাশিয়া নয় বরং ইউক্রেনই হামলার পাঁয়তারা করছে।

হোয়াইট হাউস ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের মুখপাত্র এমিলি হর্ন বলেছেন, ‘প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেছেন, ফেব্রুয়ারি মাসে রুশরা ইউক্রেন আক্রমণ করতে পারে—এমন একটি সুস্পষ্ট আশঙ্কা রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

বাইডেন এটা প্রকাশ্যেই বলে আসছেন এবং আমরা কয়েক মাস ধরে এই বিষয়ে সতর্ক করে আসছি। ’

হোয়াইট হাউসের বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আলোচনার সময় রাশিয়া হামলা করলে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদের চূড়ান্ত প্রতিক্রিয়ার ব্যাপারে প্রস্তুতির কথা আবার নিশ্চিত করেন বাইডেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে কথোপকথনের বিষয়ে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি বলেছেন, ‘তাঁরা উত্তেজনা কমানোর সাম্প্রতিক কূটনৈতিক প্রচেষ্টা নিয়ে আলোচনা করেছেন এবং ভবিষ্যতের জন্য যৌথ পদক্ষেপের বিষয়ে একমত হয়েছেন। ’

নাম প্রকাশ না করা একটি সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে সংবাদমাধ্যম অ্যাক্সিওস জানিয়েছে, ওই কথোপকথনে দুই নেতা হুমকিটা কতটা আসন্ন, তা নিয়ে দ্বিমত পোষণ করেন। কয়েকজন সামরিক বিশেষজ্ঞ বলেছেন, রাশিয়া হয়তো ভারী সামরিক সরঞ্জাম নিয়ে যাওয়ার সুবিধার জন্য ইউক্রেনে বরফ পুরোপুরি জমাট বাঁধার জন্য অপেক্ষা করছে।

গতকাল শুক্রবার এক ফোন কলে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাখোঁকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, ন্যাটোর সম্প্রসারণ নিয়ে মস্কোর নিরাপত্তাজনিত উদ্বেগকে উপেক্ষা করেছে পশ্চিমারা। পুতিন ম্যাখোঁকে বলেছেন, ‘ন্যাটোর সম্প্রসারণ ও রাশিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকায় সামরিক সরঞ্জাম মোতায়েনের বিষয়ে রাশিয়ার যে প্রধান উদ্বেগ, তা বিবেচনায় আনেনি যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো।

রাশিয়া বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র রাশিয়ার প্রধান দাবি প্রত্যাখ্যান করার পর তারা সংকট সমাধানে আশাবাদী হওয়ার সামান্য সম্ভাবনা দেখছে।

রাশিয়া আক্রান্ত হলে যুদ্ধে জড়াবে বেলারুশ : বেলারুশের প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্দার লুকাশেংকো গতকাল বলেছেন, তাঁদের প্রধান মিত্র রাশিয়া আক্রমণের শিকার হলে তাঁর দেশ যুদ্ধ করবে। পাশাপাশি লুকাশেংকো তাঁর দেশে লাখ লাখ রুশ সেনাকে অবস্থান নিতে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। গতকাল টেলিভিশনে জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে তিনি বলেন, ‘মিত্র রাশিয়া যদি সরাসরি হামলার শিকার হয় তবে আমরা যুদ্ধে জড়াব। ’ তবে এই যুদ্ধে কেউই জয়ী হবে না বলেও উল্লেখ করেন লুকাশেংকো।

গ্যাস পাইপলাইনের ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বেগ

এর আগে বৃহস্পতিবারই যুক্তরাষ্ট্র নর্ড স্ট্রিম-২ নামের রাশিয়া থেকে জার্মানিতে লাভজনক গ্যাস সরবরাহের পাইপলাইন বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে। একই দিন বার্লিনের কর্মকর্তারাও বলেছেন, রাশিয়া আক্রমণ করলে প্রকল্পটি নিষেধাজ্ঞার মুখোমুখি হতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা আগে থেকেই ইউক্রেনে আক্রমণ হলে রাশিয়ার ওপর ব্যাপক অবরোধ আরোপের হুমকি দিয়ে আসছে। যুক্তরাষ্ট্রের পশ্চিমা মিত্ররা বলেছে, ইউক্রেনে আক্রমণ হলে তারা রাশিয়ার অর্থনীতিকে লক্ষ্যবস্তু করবে। তীব্র জ্বালানিসংকট থাকার পরও জার্মানি পরিষ্কার করেছে যে ইউক্রেনে হামলা হলে তারা নর্ড স্ট্রিম-২ পাইপলাইন চালু করবে না।

কয়েকটি দেশের মধ্য দিয়ে এক হাজার ২২৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ওই পাইপলাইনটি তৈরি করতে পাঁচ বছর সময় লেগেছে। এতে খরচ হয়েছে এক হাজার ১০০ কোটি মার্কিন ডলার। বাল্টিক সাগরের নিচ দিয়ে এই পাইপলাইন নির্মাণ করা হয়েছে। এর লক্ষ্য জার্মানিতে রাশিয়ার গ্যাস রপ্তানি দ্বিগুণ করা। আইনি সমস্যার কথা উল্লেখ করে গত নভেম্বরে জার্মানির নিয়ন্ত্রক সংস্থা এর অনুমোদন স্থগিত করেছিল। এর আগে নর্ড স্ট্রিম-১ নামের একটি পাইপলাইনের নির্মাণকাজ শেষ হয় ২০১১ সালে, যেটি চালু রয়েছে। সূত্র : এএফপি, বিবিসি



সাতদিনের সেরা