kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ২৬ মে ২০২২ । ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২৪ শাওয়াল ১৪৪

আন্তর্জাতিক আইন মেনে চলার তাগিদ

ইয়েমেনে কারাগারে হামলায় নিন্দা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আন্তর্জাতিক আইন মেনে চলার তাগিদ

ইয়েমেনে সৌদি জোটের বিমান হামলায় হতাহতের ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল রাজধানী সানায় হুতিগোষ্ঠীর সমর্থকদের বিক্ষোভ। ছবি : এএফপি

ইয়েমেনের কারাগারে শুক্রবার বিমান হামলায় কমপক্ষে ৮০ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তনিও গুতেরেস। জাতিসংঘ কর্তৃপক্ষের বিবৃতিতে মনে করিয়ে দেওয়া হয়, বেসামরিক নাগরিক ও অবকাঠামোয় হামলা আন্তর্জাতিক মানবিক আইনে নিষিদ্ধ। সৌদি জোটের মিত্র যুক্তরাষ্ট্রও এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে সব পক্ষকে মানবিক আইনের বাধ্যবাধকতা মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছে।

ইয়েমেনের শিয়া মতাদর্শী বিদ্রোহী হুতি বাহিনীর অভিযোগ, সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন সুন্নিপ্রধান দেশগুলোর সামরিক জোট হামলা চালিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

তবে সৌদি জোট এ অভিযোগ অস্বীকার করেছে। মানবিক সহায়তা সংগঠনগুলো জানিয়েছে, হুতি নিয়ন্ত্রিত সাদা শহরের ওই কারাগারে হামলায় নিহত ব্যক্তির সংখ্যা আরো বেশি হয়ে থাকতে পারে।

জাতিসংঘ কর্তৃপক্ষের বিবৃতিতে বলা হয়েছে , ‘মহাসচিব আন্তনিও গুতেরেস সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে মনে করিয়ে দিয়েছেন যে বেসামরিক নাগরিক ও বেসামরিক অবকাঠামোর ওপর হামলা চালানো আন্তর্জাতিক মানবিক আইনে নিষিদ্ধ। ’

বেশ কয়েক বছর ধরে চলা ইয়েমেন সংঘাত গত সোমবার এক নতুন মোড় নেয়। হুতি বিদ্রোহীরা প্রথমবারের মতো সৌদি জোটের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবির তেল মজুদাগার ও বিমানবন্দরে ড্রোন হামলা চালায়। ওই ঘটনায় দুই ভারতীয় ও এক পাকিস্তানি কর্মী নিহত হন। হুতিরা আমিরাতে আগেও কয়েকবার হামলার কথা দাবি করলেও দেশটি তা অস্বীকার করে আসছিল। তবে এবার তারা ঘটনাটি নিশ্চিত করে কড়া জবাব দেওয়ার ঘোষণা দেয়।

আবুধাবিতে হামলার জবাব দিতে সৌদি জোট সোমবারই বিমান হামলা শুরু করেছিল। এতে কমপক্ষে ১৪ জন নিহত হয়। এরপর কারাগারে বোমা হামলার ঘটনা ঘটল।

শুক্রবার রাতে কারাগারে হামলার পরপরই বন্দরনগরী হোদেইদাতে টেলিযোগাযোগ স্থাপনায় আরো একটি হামলা হয়। এতে কমপক্ষে তিন শিশু নিহত হয়। দেশব্যাপী ইন্টারনেট ব্যবস্থায় বিপর্যয় নেমে আসে।

মহাসচিবের বিবৃতির আগে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে হুতি বিদ্রোহীদের ‘ন্যক্কারজনক সন্ত্রাসী কার্যকলাপের’ নিন্দা জানানো হয়। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন এক বিবৃতিতে বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র সংঘাতে জড়িত সব পক্ষকে আন্তর্জাতিক মানবিক আইনের বাধ্যবাধকতাগুলো মেনে চলার এবং জাতিসংঘের নেতৃত্বে অন্তর্ভুক্তিমূলক শান্তি প্রক্রিয়ায় অংশ নেওয়ার আহ্বান জানায়। ’

সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের মুখপাত্র তুর্কি আল-মালিকি কারাগারে হামলায় তাঁদের জড়িত থাকার অভিযোগ গতকাল নাকচ করে দিয়েছেন। সরকারি বার্তা সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সি জানায়, মুখপাত্র আল-মালিকি দাবি করেছেন, বিদ্রোহী স্থাপনা লক্ষ্য করে সৌদি জোটের হামলা চালানো নিয়ে প্রচারিত প্রতিবেদন ‘ভিত্তিহীন ও অমূলক’। সূত্র : এএফপি, টাইমস অব ইন্ডিয়া



সাতদিনের সেরা