kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ১৯ মে ২০২২ । ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩  

কংগ্রেসের ‘পোস্টার গার্ল’ প্রিয়াঙ্কার বিজেপিতে যাওয়ার জল্পনা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



কংগ্রেসের ‘পোস্টার গার্ল’ প্রিয়াঙ্কার বিজেপিতে যাওয়ার জল্পনা

প্রিয়াঙ্কা মৌর্য

ভারতের উত্তর প্রদেশে ‘লাড়কি হুঁ, লড় সাকতি হুঁ’ স্লোগানে নির্বাচনী প্রচারে নেমেছে কংগ্রেস। সেই প্রচারের নেতৃত্বে আছেন প্রিয়াঙ্কা মৌর্য। প্রিয়াঙ্কার এই প্রচারে পোস্টারে পোস্টারে সয়লাব দেশটির বৃহত্তম ওই রাজ্য। দলটির প্রতিটি পোস্টারে শোভা পাচ্ছে উত্তর প্রদেশের নারী কংগ্রেসের সহসভানেত্রী প্রিয়াঙ্কা মৌর্যের হাসিমুখের ছবি।

বিজ্ঞাপন

নারী শক্তির পুনর্জাগরণের আওয়াজ তুলে এবার উত্তর প্রদেশে বাজি জিততে চায় কংগ্রেস। কিন্তু সেই প্রিয়াঙ্কা মৌর্যই নাকি এবার বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পথে! কংগ্রেসের টিকিট না পাওয়ায় তিনি বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন বলে লখনউয়ের অলিগলিতে কানাকানি হচ্ছে।

নিজের দলবদলের ব্যাপারে গত বুধবার কংগ্রেসের দলীয় কার্যালয়ে বসেই ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করেছেন উত্তর প্রদেশের নারী কংগ্রেসের সহসভানেত্রী প্রিয়াঙ্কা মৌর্য। তিনি বলেন, ‘সম্ভবত আপনাদের কথাই ঠিক। আমি দিনরাত পরিশ্রম করেছি। কিন্তু দেখলাম, কাকে টিকিট দেওয়া হবে, তা আগে থেকেই ঠিক করা ছিল। আমি যোগ্য হয়েও টিকিট পেলাম না। ’ প্রিয়াঙ্কা আরো বলেন, ‘কংগ্রেসের স্লোগান লাড়কি হুঁ, লড় সাকতি হুঁ। অথচ আমাকেই লড়ার সুযোগ দেওয়া হলো না!’ তিনি জানিয়েছেন, খুব দ্রুত পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন।

উত্তর প্রদেশে ভোট যত এগিয়ে আসছে, ততই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে দলবদলের খেলা। প্রথমে যোগি আদিত্যনাথের মন্ত্রিসভার সদস্যসহ একাধিক বিধায়ককে ছিনিয়ে নিয়ে এগিয়ে যায় সমাজবাদী পার্টি।  

গত বুধবার পাল্টা দেয় বিজেপি। পদ্ম পতাকা হাতে তুলে নেন মুলায়ম সিংহের ছোট ছেলের স্ত্রী অপর্ণা যাদব। বিজেপির নেতাকর্মীরা ভাবছেন, কংগ্রেসের ‘পোস্টার গার্ল’কে ছিনিয়ে নেওয়া সম্ভব হলে অন্যদের ধাক্কা দেওয়ার ব্যাপারে অনেকটাই এগিয়ে যাবে পদ্মশিবির।

চলতি বছরের ১০ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে উত্তর প্রদেশে নির্বাচন। ৭ মার্চ পর্যন্ত ভোটের পর ফলাফল প্রকাশিত হবে ১০ মার্চ।

গোরক্ষপুরে যোগীর বিরুদ্ধে প্রার্থী হচ্ছেন দলিত নেতা চন্দ্রশেখর : উত্তর প্রদেশের বিধানসভা ভোটে বিজেপি নেতা মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে গোরক্ষপুর শহরে প্রার্থী হচ্ছেন দলিত নেতা চন্দ্রশেখর আজাদ রাবণ। সূত্রের খবর, আজাদ সমাজ পার্টির প্রধান চন্দ্রশেখরকে ওই আসনে সমর্থন জানাতে পারে কংগ্রেস। গতকাল বৃহস্পতিবার চন্দ্রশেখরের দলের তরফে জানানো হয়েছে, যোগীর বিরুদ্ধে প্রার্থী হচ্ছেন তিনি। অখিলেশ যাদবের সমাজবাদী পার্টির (এসপি) সঙ্গে জোটের সম্ভাবনা তৈরি হলেও শেষ পর্যন্ত একক শক্তিতে উত্তর প্রদেশ বিধানসভা ভোটে লড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ৩৪ বছরের দলিত নেতা। সূত্র : আনন্দবাজার



সাতদিনের সেরা