kalerkantho

বৃহস্পতিবার ।  ১৯ মে ২০২২ । ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩  

আবুধাবিতে সন্দেহভাজন ড্রোন হামলায় নিহত ৩

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) রাজধানী আবুধাবিতে গতকাল সোমবার সন্দেহভাজন ড্রোন হামলায় বিস্ফোরণ ও আগুনে তিনজন নিহত হয়েছে। দেশটির কর্মকর্তারা এ কথা জানিয়েছেন। এর মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা ইউএইতে সামরিক অভিযানের ঘোষণা দিয়েছিল।   উল্লেখ্য, দেশটি হুতিদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান পরিচালনারত সৌদি জোটের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার।

বিজ্ঞাপন

উড়ন্ত বস্তুর আঘাতে আবুধাবি বিমানবন্দরে একটি নির্মাণকাজের এলাকায় আগুন লেগে যায়। একই সময়ে বৃহৎ তেল কম্পানি এডিএনওসির (আবুধাবি ন্যাশনাল অয়েল কম্পানি) তেল মজুদের স্থাপনার কাছে তিনটি পেট্রল ট্যাংকে বিস্ফোরণ ঘটে। ওই বিস্ফোরণে দুজন ভারতীয় ও একজন পাকিস্তানি নিহত হয়।

পুলিশ বলেছে, উভয় স্থানে ‘ছোট উড়ন্ত বস্তুর’ নমুনা পাওয়া গেছে, যা প্রমাণ করে যে সেখানে হামলার ঘটনা ঘটেছে। পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলের ধনী ও স্থিতিশীল দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে এ ধরনের হামলার ঘটনা অত্যন্ত বিরল।

এক বিবৃতিতে আমিরাতের পুলিশ বলেছে, ‘প্রাথমিক তদন্তে যে ছোট উড়ন্ত বস্তু শনাক্ত করা হয়েছে, তা ইঙ্গিত করে যে এগুলো সম্ভবত ড্রোনের অংশ। এ হামলার কারণেই বিস্ফোরণ ও আগুন লাগার ঘটনা ঘটতে পারে। ঘটনাগুলো তদন্ত করা হচ্ছে। ’

ইয়েমেনের ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীরা এ হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে হুতিদের সামরিক মুখপাত্র ইয়েমেনের সরকারপন্থী জোটের অংশীদার সংযুক্ত আরব আমিরাতে একটি ‘সামরিক অভিযান’ চালানোর কথা বলেছিলেন। এটি সাত বছরের ইয়েমেন যুদ্ধের মাত্রা বড়ভাবে বাড়িয়ে দিতে পারে।

ঘটনার আগে মুখপাত্র ইয়াহিয়া সারি এক টুইটে বলেন, হুতি বিদ্রোহীদের সশস্ত্র বাহিনী বলেছে যে তারা আগামী কয়েক ঘণ্টার মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাতে একটি গুরুত্বপূর্ণ সামরিক অভিযান ঘোষণা করবে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের মিত্র সৌদি আরবের ওপর হুতিদের আক্রমণের প্রধান ধরন হলো ড্রোন হামলা। সৌদি আরবের নেতৃত্বাধীন সুন্নি মতাদর্শী জোট ইয়েমেন সরকারের পক্ষে শিয়া আদর্শের হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে হামলা চালিয়ে আসছে। হুতি বিদ্রোহীরা এর আগে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুই জাঁকজমকপূর্ণ শহর রাজধানী আবুধাবি ও বাণিজ্যিক কেন্দ্র দুবাইকে লক্ষ্য করে হামলার হুমকি দিয়েছিল।

মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে দরিদ্র দেশ ইয়েমেনের দীর্ঘ গৃহযুদ্ধে দেশটির লাখ লাখ মানুষ বিপর্যয়ের মুখে। ইউএই ২০১৯ সালে হুতিদের বিরুদ্ধে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটে যোগ দেয়। সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সমর্থনে ইয়েমেনের সরকারপন্থী জায়ান্টস ব্রিগেড সম্প্রতি কিছু এলাকা পুনঃ দখল করে হুতি বিদ্রোহীদের একটি উল্লেখযোগ্য ধাক্কা দিয়েছে। সূত্র : এএফপি



সাতদিনের সেরা