kalerkantho

শনিবার ।  ২১ মে ২০২২ । ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ১৯ শাওয়াল ১৪৪৩  

ভারতে বিধানসভা নির্বাচন

গোরক্ষপুরে প্রার্থী হচ্ছেন যোগী

পাঞ্জাবে কংগ্রেসের প্রার্থিতালিকা ঘোষণা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ জানুয়ারি, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভারতের উত্তর প্রদেশে বিধানসভা ভোটে গোরক্ষপুর শহর কেন্দ্রে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) প্রার্থী হচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। গতকাল শনিবার প্রথম দফায় ১০৭ আসনে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করে এ কথা জানান দলের নেতা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান।

উত্তর প্রদেশের বিধানসভা ভোটে বিজেপি প্রার্থী করেছে রাজ্যের উপমুখ্যমন্ত্রী কেশব প্রসাদ মৌর্যকেও। তিনি লড়বেন কৌশাম্বী জেলার সিরাথু কেন্দ্রে।

বিজ্ঞাপন

যোগী ও কেশব দুজনই বর্তমানে উত্তর প্রদেশ আইনসভার উচ্চকক্ষ বিধান পরিষদের সদস্য। যোগী এবারই প্রথম বিধানসভা ভোটে লড়বেন। এর আগে পূর্ব উত্তর প্রদেশের গোরক্ষপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে ১৯৯৮-২০১৪ টানা পাঁচবার সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন যোগী।

এদিকে বহুজন সমাজবাদী পার্টির তরফে প্রাথমিকভাবে ৫৩ আসনে প্রার্থিতালিকা ঘোষণা করেছেন দলের প্রধান মায়াবতী। আগামী দু-এক দিনের মধ্যে বাকি আসনের প্রার্থিতালিকা ঘোষণা করা হবে বলে তিনি জানান।

১০ ফেব্রুয়ারি থেকে ৭ মার্চ পর্যন্ত সাত দফায় ৪০৩ আসনের উত্তর প্রদেশ বিধানসভায় ভোট। যোগীর নেতৃত্বে বিজেপি টানা দ্বিতীয়বার ওই রাজ্যে সরকার গড়তে পারবে, নাকি চমকে দেবে অখিলেশ যাদবের সমাজবাদী পার্টি, সেই উত্তর মিলবে ১০ মার্চ।

পাঞ্জাবে কংগ্রেসের প্রার্থী ঘোষণা : পাঞ্জাবের বিধানসভা ভোটে মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চন্নী এবং প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি নবজ্যোত সিং সিধু তাঁদের পুরনো কেন্দ্রেই প্রার্থী হচ্ছেন।

মুখ্যমন্ত্রী চন্নী প্রার্থী হচ্ছেন রূপনগর জেলার চমকৌর সাহিব কেন্দ্র থেকে। ২০০৭-১৭ টানা তিনটি বিধানসভা ভোটে এই কেন্দ্র থেকেই জিতেছেন কংগ্রেসের দলিত-শিখ নেতা। অন্যদিকে সিধুকে এবারও প্রার্থী করা হয়েছে অমৃতসর পূর্ব বিধানসভা আসনে। ২০১৭ সালে প্রথমবার এই কেন্দ্র থেকে কংগ্রেস প্রার্থী হিসেবে জিতে অমরেন্দ্র সিংয়ের সরকারে মন্ত্রী হয়েছিলেন ভারতের জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার সিধু। পরে অবশ্য অমরেন্দ্রর সঙ্গে মতবিরোধের জেরে ইস্তফা দেন তিনি। ২০০৪, ২০০৭ (উপনির্বাচন) এবং ২০০৯ সালে পর পর তিনবার অমৃতসর থেকে লোকসভায় নির্বাচিত হয়েছেন সিধু।

পাঞ্জাবের ১১৭টি আসনের মধ্যে প্রথম দফায় ৮৬ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেছে কংগ্রেস। চন্নী ও সিধু ছাড়া তালিকায় উল্লেখযোগ্য নাম দুই উপমুখ্যমন্ত্রী সুখজেন্দ্র সিংহ রণধাওয়া ও ওমপ্রকাশ সোনি এবং বলিউড অভিনেতা সোনু সুদের বোন মালবিকা।

আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি এক দফাতেই ১১৭ আসনের পাঞ্জাব বিধানসভার ভোট। চন্নীর নেতৃত্বে কংগ্রেস টানা দ্বিতীয়বার উত্তর প্রদেশে সরকার গড়তে পারবে, নাকি মাথা তুলে দাঁড়াবে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি (আপ) বা সাবেক মুখ্যমন্ত্রী প্রকাশ সিংহ বাদলের শিরোমণি অকালি দল, সেই উত্তর মিলবে ১০ মার্চ। লড়াইয়ে রয়েছে সদ্য কংগ্রেসত্যাগী অমরেন্দ্র সিংয়ের নতুন দল পাঞ্জাব লোক কংগ্রেস এবং বিজেপির জোটও।

সূত্র : এনডিটিভি



সাতদিনের সেরা